তমব্রু নো-ম্যানস ল্যান্ডে আতঙ্কে রোহিঙ্গারা

আবদুল আজিজ, বাংলাট্রিবিউন (কক্সবাজার)

তমব্রু নো-ম্যানস ল্যান্ডে অবস্থানকারী রোহিঙ্গারা অচিরেই বাংলাদেশে প্রবেশ না করলে ভয়াবহ পরিণতি হবে বলে সম্প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন মিয়ানমারের উপ-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মেজর জেনারেল অং সো। যে কোনও মুহূর্তে ‘বিপদের সম্মুখীন হওয়ার’ ভয় দেখিয়ে রোহিঙ্গাদের নো-ম্যানস ল্যান্ড ছাড়া করতে প্রায় প্রতিদিনই সীমান্তে মাইকিং করছে মিয়ানমারের বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি)। এ পরিস্থিতিতে আতঙ্ক বিরাজ করছে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের তমব্রু নো-ম্যানস ল্যান্ডে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের মধ্যে। কোথায় যাবেন, কী করবেন কিছুই বুঝতে পারছেন না তারা।

তমব্রু নো-ম্যানস ল্যান্ডের বেশ কয়েকজন রোহিঙ্গা জানান, গত ৯ ফেব্রুয়ারি রাখাইন রাজ্য সফরের সময় বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে আসেন মিয়ানমারের উপ-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মেজর জেনারেল অং সো। এ সময় তিনি রোহিঙ্গাদের ডেকে নিয়ে অচিরেই বাংলাদেশে ঢুকে পড়ার ইঙ্গিত দেন। তা না হলে তাদের কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

এই রোহিঙ্গারা আরও জানান, ৯ ফেব্রুয়ারির পর থেকে তাদের তমব্রু নো-ম্যানস ল্যান্ড থেকে তাড়াতে নানা কর্মকাণ্ড শুরু করেছে বিজিপি। ওই দিনের পর থেকে তারা তাঁবু খাটিয়ে তমব্রু নো-ম্যানস ল্যান্ডেই দিনরাত অবস্থান করছে। প্রতিরাতেই রোহিঙ্গাদের আশ্রয় শিবিরে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করছে বিজিপি। মাঝে মাঝেই তারা ফাঁকা গুলি ছুড়ে ভয় দেখাচ্ছে। একইসঙ্গে তারা প্রতিদিনই মাইকিং করে হুমকি দিচ্ছে, নো-ম্যানস ল্যান্ড না ছাড়লে যেকোনও মুহূর্তে রোহিঙ্গাদের চরম বিপদের সম্মুখীন হতে হবে।

.নো-ম্যানস ল্যান্ডের মিয়ানমার অংশে দেশটির উপ-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী (ছবি- প্রতিনিধি)

গত বছরের ২৪ আগস্ট রাতে রাখাইন রাজ্যে সহিংসতা শুরু হলে প্রাণ বাঁচাতে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসেন।  এ সময় অনেক রোহিঙ্গা বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুনধুম ও তমব্রু নো-ম্যানস ল্যান্ডে আটকা পড়েন এবং সেখানেই আশ্রয়শিবির তৈরি করে অবস্থান নেন। পরে ঘুনধুম নো-ম্যানস ল্যান্ডে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের সেখান থেকে সরিয়ে কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং ও বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিয়ে আসে বাংলাদেশ সরকার। তবে তমব্রু সীমান্তের নো-ম্যানস ল্যান্ডে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের অন্য কোথাও সরিয়ে নেওয়া হয়নি। এখনও সেখানে প্রায় ছয় হাজার রোহিঙ্গা অবস্থান করছে। এসব রোহিঙ্গাকে মানবিক সহায়তা দিয়ে আসছে বাংলাদেশ সরকার ও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা।

তমব্রু নো-ম্যানস ল্যান্ডে বাংলাদেশ অংশ থেকে কথা হয় ষাটোর্ধ্ব রোহিঙ্গা মোহাম্মদ ইসলামের সঙ্গে। নিজেকে রাখাইন রাজ্যের রাইম্যাখালী এলাকার বাসিন্দা পরিচয় দিয়ে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘প্রায় পাঁচ মাস ধরে আমি এই নো-ম্যানস ল্যান্ডে আছি। গত ৯ ফেব্রুয়ারি বেলা ১১টার দিকে মিয়ানমারের উপ-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মেজর জেনারেল অং সো আমাদের কাঁটাতারের বেড়ার পাশে ডাকেন। ভয়ে আমরা কাঁটাতারের বেড়ার খানিকটা দূরে দাঁড়াই। এ সময় তিনি আমাদের উদ্দেশে বলেন, এই জমি থেকে শিগগিরই অন্য কোথাও সরে যাও। নয়তো পরিণতি ভয়াবহ হবে।’তুমব্রু নো-ম্যানস ল্যান্ডে রোহিঙ্গা বসতি (ছবি- প্রতিনিধি)

আবুল হোসেন (৬৫) নামের অন্য এক রোহিঙ্গা বলেন, ‘রাত হলেই মিয়ানমারের পাহাড় থেকে ইট ও কাঠের টুকরো নিক্ষেপ করা হয়। এসব ইট ও কাঠের টুকরো ত্রিপলে এসে পড়ে তা ছিদ্র হয়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এছাড়া, এভাবে ইট-কাঠের টুকরো ছুড়ে মারায় আমাদের শিশু সন্তানদের মনে আতঙ্ক তৈরি হচ্ছে।’

খালেদ হোসেন নামে আরও এক রোহিঙ্গা বলেন, ‘নির্যাতনের ভয়ে রাখাইন রাজ্য ছেড়ে পালিয়ে সীমান্তে নো-ম্যানস ল্যান্ডে এসে আশ্রয় নিয়েছি। এখানেও আমাদের ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। এ পৃথিবীতে আমাদের কোনও জায়গা নেই। আমরা যাবো কোথায়? আমাদের যদি এখন কুতুপালং বা বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সরিয়ে নেওয়া হয়, তবে খুবই উপকার হবে। মিয়ানমার সরকারের ওপর ভরসা নেই। এ সরকার যে কোনও মুহূর্তে আমাদের গুলি করার নির্দেশ দিতে পারে।’

কক্সবাজার বিজিবির সেক্টর কমান্ডার কর্নেল আবদুল খালেক বলেন, ‘মিয়ানমার সীমান্তের তমব্রু পরিদর্শন করে গেছেন সেদেশের উপ-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অং সো। মিয়ানমার সরকারই এটা আমাদের জানিয়েছে। ওই সময় অং সো নো-ম্যানস ল্যান্ডে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের সেখান থেকে সরে যেতে বলেছেন, এটাও আমরা শুনেছি। রোহিঙ্গারা নো-ম্যানস ল্যান্ড থেকে অন্যত্র যাবে কিনা এটা আমাদের দেখার বিষয় নয়। রোহিঙ্গারা নো-ম্যানস ল্যান্ড ক্রস করলে এ নিয়ে আমরা চিন্তাভাবনা করবো। বিজিপির মাইকিংয়ের ব্যাপারেও আমরা প্রতিবাদ জানিয়েছি।’

সর্বশেষ সংবাদ

নাফে মাছ ধরার অনুমতি ও ইয়াবা বন্ধে সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দিন : এমপি শাহীন আক্তার

সিবিএন এর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে সৌদি প্রবাসী বিএনপি নেতা ফরিদের শুভেচ্ছা

এমপি বদি’র সাথে ইউএই টেকনাফ সমিতি’র সৌজন্য সাক্ষাৎ

চাকরিচ্যুতির ভয় দেখিয়ে উপজাতি এনজিও কর্মীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ 

বন্ধ হলো অনলাইনে জুয়া খেলার ১৭৬ সাইট

শাজাহান খানকে সংসদে বেশি কথা বলতে দেয়ায় প্রতিবাদ

যুদ্ধ বিমানের প্রহরায় পাকিস্তানে নামলেন সৌদি যুবরাজ

অনুমোদন পেল আরও তিন ব্যাংক

আ’লীগের ভাবমুর্তি উজ্জ্বল করতে জনগনের সমর্থন চাই : ফজলুল করিম সাঈদী

তিন দিনের সফর শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কক্সবাজার ত্যাগ

শহরে দুর্বৃত্তদের হামলায় অন্তঃসত্ত্বাসহ ৯ নারী আহত

কৈয়ারবিল আইডিয়াল হাই স্কুলে অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত

কুতুবদিয়ায় মাহিন্দ্রা গাড়ী দূর্ঘটনায় স্কুল ছাত্র আহত

নির্বাচিত হলে শাসক নয়, সেবক হয়েই কাজ করবো- গিয়াসউদ্দিন চৌধুরী

রামুতে রেল লাইনে যাচ্ছে ব্যক্তি মালিকানাধিন জমির বালি

কেরুনতলী ইউনিয়ন ভূমি অফিসে দালালদের উৎপাত চরমে, অতিষ্ঠ মানুষ

শহর আ. লীগ নেতা ও বিশিষ্ট ঠিকাদার কালামের প্রতিবাদ

চট্টগ্রামে স্বামীকে গলাকেটে হত্যা করে পালিয়ে গেছে স্ত্রী

গ্যাস লাইন কেটে যাওয়ায় চরম দুর্ভোগে চট্টগ্রামের মানুষ

দুই হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পর্যায়ক্রমে এমপিওভুক্ত হচ্ছে