উপকুলে বনভূমি পরিণত হচ্ছে মরুভূমিতে, উচ্ছেদ হচ্ছে না করাত কল

জাহাঙ্গীর আলম, ইনানী, উখিয়া:
উপকুলে গড়ে ওঠেছে অবৈধ করাত কল। কক্সবাজারের দক্ষিণ কলাতলী থেকে শুরু করে রামু উখিয়া টেকনাফ উপজেলার উপকুল জুড়ে গড়ে ওঠেছে সরকারের অনুমতি বিহীন করাত কল। সেই করাত কলে চিরায় করা হচ্ছে সাগর পাড়ের ঝাউ গাছ সহ বনের বিভিন্ন প্রজাতির গাছ। সংশ্লিষ্ট বন কর্মকতাদের উতকুচের মাধ্যমে মেনেজ করে নিয়মিত তারা করাত কলের ব্যবসা অব্যাহত রেখেছে বলে অভিযোগ।ে

রাতারাতি বনাঞ্চলের গাছ নিধন পূর্বক করাত কলে চিরায় করে বনাঞ্চল উজাড় করে গেলেও তা দেখার যেন কেউ নেই। বন প্রহরিরা মাঝে মধ্যে অভিযান ছালিয়ে কিছু কাঠ আটক করলেও রিতিমত করাত কলের ব্যবসা আব্যহত রয়েছে।

রামু খুনিয়া পালং, উখিয়ার জালিয়া পালং, টেকনাফ বাহার ছড়া শাপলাপুর, সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, আট থেকে দশটির মত করাত কল রিতিমত চালু রয়েছে। প্রভাব শালীরা এতে বন কর্মকতাদের বিভিন্ন ভাবে মেনেজ করে করাত কলের ব্যবসা অব্যহত রেখেছে।

করাত কলের মালিক খুনিয়া পালং ইউনিয়নের ছরোয়ার জানান, তার সিন্ডিকেটে তিন থেকে চারটি করাত কল রিতিমত চালু থাকে।

জালিয়া পালং ইউনিয়নের করাত কলের মালিক ইউছুফ জালাল বলেন, বন বিভাগকে মাশুহারা দিয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছি।

ছেপট খালীর নুরুল আলম, শাপলাপুরের হামিদ হোসন, জসিম মিস্ত্রী সহ আরও অনেকে জানান, আমরা বন বিভাগের কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে করাত কলের ব্যবসা অব্যহত রেখেছি।

সংশ্লিষ্ট এলাকা সুত্রে জানা যায, হামিদ হোসন ও জসিমের নেতৃত্বে রাতে আধারে ট্রাক ভর্তি কাট এনে প্রতিনিয়ত তা চিরায় আবার ট্রাক ভর্তি করে নিয়ে যাচ্ছে চট্টগ্রাম সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তরে। শুধু ট্রাক দিয়ে নয় শাপলাপুর পয়েন্ট দিয়ে গাছ নামিয়ে ট্রলার যোগেও পাচার করে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। সচেতন মহলের ধারণা, শাপলাপুর ও মনখালী এলাকার ৩টি করাত কল যদি উচ্ছেদ করা না হয় তবে অত্র অঞ্চলে বনাঞ্চল নামের কিছু থাকবে না।

এই ব্যাপারে ধুয়াপালং রেঞ্জ কর্মকতা সাইফুল ইসলাম বলেন, কিছু দিন আগে অভিযান চালিয়ে খুনিয়া পালং থেকে দুইটি করত কল জব্দ করেছি, তবে আমার এই অভিযান অব্যাহত আছে এবং থাকবে।

ইনানী ও জালিয়াপালং রেঞ্জের ফরেস্টা ও রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ ইব্রাহীম বলেন, আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যে অবৈধ করাত কল উচ্ছেদ করা হবে।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে ককস্বাজার দক্ষিন বন বিভাগের ডিপু আলী কবির  জানান, ককস্বাজার দক্ষিণে কোন করাত কলের বৈধতা নেয়। দ্রুত তাদের বিরুদ্ধে আইন গত ব্যবস্থা নেবেন বলে তিনি জানান।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

নবাগত জেলা জজ দায়িত্ব গ্রহন করে কোর্ট পরিচালনা করেছেন

নজিব আমার রাজনৈতিক বাগানের প্রথম ফুটন্ত ফুল- মেয়র মুজিবুর রহমান

কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে  “শুদ্ধ উচ্চারণ, আবৃত্তি, সংবাদপাঠ ও সাংবাদিকতা” বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা 

রামুর কচ্ছপিয়াতে রুমির বাল্য বিবাহের আয়োজন

সরকার শিক্ষাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছে- এমপি কমল

আইসক্রিমের নামে শিশুরা কী খাচ্ছে?

উদীচী কক্সবাজার সরকারি কলেজ শাখার দ্বিতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত

পেকুয়ায় বৃদ্ধকে কুপিয়ে জখম

আনিস উল্লাহ টেকনাফ উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত

চকরিয়া উপজেলা যুবদলের কমিটি বিলুপ্ত ও আহবায়ক কমিটি গঠিত

জেলা আ.লীগের জরুরি সভা শুক্রবার

চবি উপাচার্যের সাথে হিস্ট্রি ক্লাবের সাক্ষাৎ

পেকুয়ায় কুপে আহত ব্যবসায়ী হাসপাতালে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে

সদর-রামু আসনে নজিবুল ইসলামকে নৌকার একক প্রার্থী ঘোষণা পৌর আ. লীগের

যোগাযোগ মন্ত্রীর আগমনে ঈদগাঁওতে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

রাষ্ট্রপতির প্রতি আহবান: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে স্বাক্ষর না সংসদে ফেরৎ পাঠান

উত্তপ্ত চট্টগ্রাম কলেজ, সক্রিয় বিবদমান তিনটি গ্রুপ

চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠে আন্ত:ফুটবল টুর্ণামেন্ট উদ্বোধন

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হোপ ফাউন্ডেশনের ৪০শয্যার হসপিটাল উদ্বোধন

পৌর কাউন্সিলরসহ ৪ মাদক কারবারির বাড়িতে অভিযান, নারীসহ দুই জনের সাজা