বান্দরবানে ড্রোজার দিয়ে বালু উত্তোলন, প্রশাসন নীরব

নুরুল কবির, বান্দরবান:

বান্দরবান সদর উপজেলার সুয়ালক ভাগ্যকুলের স্থানীয় ইউপি মেম্বার মোঃ জামাল উদ্দিনের ও স্থানীয় বাসিন্দার কাজলের সহযোগিতায় বান্দরবান সীমান্তবর্তী ভাগ্যকুলের চাপরুখাল থেকে অপরিকল্পিত ও অবৈধভাবে ড্রোজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করছে চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার অসাধু বালু ব্যবসায়ী মো: দেলোয়ার, শোয়ের, জাহিদ। আর এ অপরিকল্পিত ভাবে বালু উত্তোলনের কারণে চাপুরুখালের পাড় ভেঙ্গে গিয়ে এলাকার প্রায় কয়েক একর এলাকার ফসলীজমি বিলীন হয়ে যাচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, সুয়ালক ইউনিয়নের ভাগ্যকুল এলাকার সীমান্তবর্তী এলাকার চাপরুখালের কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ড্রোজার মেশিনের সাহায্যে ১৫/২০জন শ্রমিক দিয়ে বালু উত্তোলন করছে চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার বালু ব্যবসায়ী মো: দেলোয়ার, শোয়ের, জাহিদ। আর তাদের এ অপরিকল্পিত বালু উত্তোলনের কারণে ইতিমধ্যে এলাকার কয়েক একর ফসলী জমি চাপরুখালের সাথে মিশে গেছে। এছাড়া প্রতিদিনই ভাঙ্গছে চাপরুখালের দু’পার। বর্তমানে চাপরুখালের পাড়ে কয়েক কিলোমিটার এলাকায় প্রায় শতাধিক ট্রাক বালু মজুদ রয়েছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বান্দরবান সুয়ালক ইউনিয়নের ভাগ্যকুল এলাকার সীমান্তবর্তী এলাকার চাপরুখালের কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ড্রোজার মেশিনের সাহায্যে প্রায় ৫বছর ধরে বালু উত্তোলন করছে চট্টগ্রামের লোহাগাড়া থানার পদুয়ার ঠাকুরদিঘীর বালু ব্যবসায়ী মো: দেলোয়ার, শোয়ের, জাহিদ। আর তাদের এ বালু উত্তোলনের কাজে সাহায্যে করছে স্থানীয় ভাগ্যকুল ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার মোঃ জামাল ও স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ কাজল। আর এর ফলে এলাকার প্রায় কয়েক একর ফসলী জমি নষ্ট হয়ে গেছে। প্রতিদিনই খালের পাড় ভেঙ্গে পাল্টে যাচ্ছে বান্দরবান-চট্টগ্রামের সীমানা। চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার বালু ব্যবসায়ী মো: দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমি চট্টগ্রামের ডিসি থেকে এ খাল থেকেই বালু উত্তোলনের অনুমতি নিয়েছি। বান্দরবান-চট্টগ্রাম সীমানা আমি বুঝি না। ড্রোজার মেশিন ব্যবহারের অনুমতি আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি প্রশাসন আর আমি বুঝব।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ভাগ্যকুল ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার মোঃ জামাল উদ্দিন বলেন, আমি বালু ব্যবসায়ীদেরকে সাহায্যে করছি এ কথা ঠিক না। তবে যারা বালু উত্তোলন করছে তাদের বৈধ কাগজপত্র আছে। তাই তাদেরকে বালু উত্তোলনে কোন ধরনের বাঁধা দিতে পারছিনা।

সুয়ালক ইউপি চেয়ারম্যান উক্যানু মারমা বলেন, এ খালটি বান্দরবান চট্টগ্রামের সীমানা ঠিক রেখেছে। এ খাল থেকে অবাধে বালু উত্তোলনের ফলে দিনে দিনে সীমানা পরিবর্তন হচ্ছে। আমি কয়েকবার তাদেরকে এ বালু উত্তোলন বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছি। কিন্তু তারা আমার এ নির্দেশ মানছেনা। আমি তাদেরকে বৈধ কাগজ নিয়ে দেখা করতে বলছি, তারা আমার এ কথার কোন তোয়াক্কা করছেনা। তবে আমি বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনকে জানিয়েছি। খুব শ্রীগ্রই আমরা যৌথ ভাবে অভিযান চালিয়ে এ বালু উত্তোলন বন্ধ করব।

cbn
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

সীমান্তে পাকা স্থাপনা নির্মাণে মিয়ানমারের দুঃখ প্রকাশ

নাইক্ষ্যংছড়ি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা উদ্বোধন

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব সভাপতি কলিম সরওয়ারকে আমিরাতে সংবর্ধনা

রিহ্যাব শারজাহ মেলায় অংশ নিচ্ছে ৫০ কোম্পানি ও ১০ ব্যাংক

হোপ হসপিটালে পোড়া রোগীদের সার্জারি ক্যাম্প

রামু কলেজে উগ্রবাদ-সহিংসতা প্রতিরোধে বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও ওরিয়েন্টেশন

আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পর্ক নেই ওলামা লীগের

বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শীর্ষে বাংলাদেশি পুরুষরা

চুরি যাওয়া মোবাইল লক করে দেওয়ার সেবা চালু করছে বিটিআরসি

মহেশখালীতে বসতি উচ্ছেদ করে কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্পের রাস্তা নির্মাণ, উৎকন্ঠা

ফেরিওয়ালা

‘ওয়ার্ল্ড হিজাব ডে’ পালিত হবে ১ ফেব্রুয়ারি

সাবেক ফুটবলার কায়সার হামিদ কারাগারে

লাগাতার হাট-বাজার বয়কটে চরম দূর্ভোগে বাঘাইছড়ির লাখো মানুষ

সাবমেরিন ক্যাবলের কনসোর্টিয়ামে যুক্ত হলো বাংলাদেশ

রোহিঙ্গাদের দেখতে কক্সবাজারে জাতিসংঘের বিশেষ দূত

৩৭তম বিসিএস নন-ক্যাডারের ফল ফেব্রুয়ারিতে

একটি ব্রীজের জন্য ১০ গ্রামের মানুষের সীমাহীন দূর্ভোগ

কঠিন সময় পার করছে রেলওয়ে

ওয়াইফাই জোন স্থাপনের নিমিত্তে কউক’র আলোচনা সভা