বান্দরবানে ড্রোজার দিয়ে বালু উত্তোলন, প্রশাসন নীরব

নুরুল কবির, বান্দরবান:

বান্দরবান সদর উপজেলার সুয়ালক ভাগ্যকুলের স্থানীয় ইউপি মেম্বার মোঃ জামাল উদ্দিনের ও স্থানীয় বাসিন্দার কাজলের সহযোগিতায় বান্দরবান সীমান্তবর্তী ভাগ্যকুলের চাপরুখাল থেকে অপরিকল্পিত ও অবৈধভাবে ড্রোজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করছে চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার অসাধু বালু ব্যবসায়ী মো: দেলোয়ার, শোয়ের, জাহিদ। আর এ অপরিকল্পিত ভাবে বালু উত্তোলনের কারণে চাপুরুখালের পাড় ভেঙ্গে গিয়ে এলাকার প্রায় কয়েক একর এলাকার ফসলীজমি বিলীন হয়ে যাচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, সুয়ালক ইউনিয়নের ভাগ্যকুল এলাকার সীমান্তবর্তী এলাকার চাপরুখালের কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ড্রোজার মেশিনের সাহায্যে ১৫/২০জন শ্রমিক দিয়ে বালু উত্তোলন করছে চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার বালু ব্যবসায়ী মো: দেলোয়ার, শোয়ের, জাহিদ। আর তাদের এ অপরিকল্পিত বালু উত্তোলনের কারণে ইতিমধ্যে এলাকার কয়েক একর ফসলী জমি চাপরুখালের সাথে মিশে গেছে। এছাড়া প্রতিদিনই ভাঙ্গছে চাপরুখালের দু’পার। বর্তমানে চাপরুখালের পাড়ে কয়েক কিলোমিটার এলাকায় প্রায় শতাধিক ট্রাক বালু মজুদ রয়েছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বান্দরবান সুয়ালক ইউনিয়নের ভাগ্যকুল এলাকার সীমান্তবর্তী এলাকার চাপরুখালের কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ড্রোজার মেশিনের সাহায্যে প্রায় ৫বছর ধরে বালু উত্তোলন করছে চট্টগ্রামের লোহাগাড়া থানার পদুয়ার ঠাকুরদিঘীর বালু ব্যবসায়ী মো: দেলোয়ার, শোয়ের, জাহিদ। আর তাদের এ বালু উত্তোলনের কাজে সাহায্যে করছে স্থানীয় ভাগ্যকুল ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার মোঃ জামাল ও স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ কাজল। আর এর ফলে এলাকার প্রায় কয়েক একর ফসলী জমি নষ্ট হয়ে গেছে। প্রতিদিনই খালের পাড় ভেঙ্গে পাল্টে যাচ্ছে বান্দরবান-চট্টগ্রামের সীমানা। চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার বালু ব্যবসায়ী মো: দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমি চট্টগ্রামের ডিসি থেকে এ খাল থেকেই বালু উত্তোলনের অনুমতি নিয়েছি। বান্দরবান-চট্টগ্রাম সীমানা আমি বুঝি না। ড্রোজার মেশিন ব্যবহারের অনুমতি আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি প্রশাসন আর আমি বুঝব।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ভাগ্যকুল ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার মোঃ জামাল উদ্দিন বলেন, আমি বালু ব্যবসায়ীদেরকে সাহায্যে করছি এ কথা ঠিক না। তবে যারা বালু উত্তোলন করছে তাদের বৈধ কাগজপত্র আছে। তাই তাদেরকে বালু উত্তোলনে কোন ধরনের বাঁধা দিতে পারছিনা।

সুয়ালক ইউপি চেয়ারম্যান উক্যানু মারমা বলেন, এ খালটি বান্দরবান চট্টগ্রামের সীমানা ঠিক রেখেছে। এ খাল থেকে অবাধে বালু উত্তোলনের ফলে দিনে দিনে সীমানা পরিবর্তন হচ্ছে। আমি কয়েকবার তাদেরকে এ বালু উত্তোলন বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছি। কিন্তু তারা আমার এ নির্দেশ মানছেনা। আমি তাদেরকে বৈধ কাগজ নিয়ে দেখা করতে বলছি, তারা আমার এ কথার কোন তোয়াক্কা করছেনা। তবে আমি বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনকে জানিয়েছি। খুব শ্রীগ্রই আমরা যৌথ ভাবে অভিযান চালিয়ে এ বালু উত্তোলন বন্ধ করব।

সর্বশেষ সংবাদ

আদালতের আদেশনামা গোপন করে শপথ নিয়েছে জমিরী- রফিক উদ্দীন

জেরায় বিমর্ষ সোনাগাজী থানার সেই ওসি মোয়াজ্জেম

পেকুয়ায় শরতঘোনা পয়েন্টে বেড়িবাঁধ বিলীন

পেকুয়ায় মুক্তিযোদ্ধার ছেলেকে হত্যাচেষ্টা

চকরিয়ায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের উপজেলা প্রশাসনের আর্থিক সহায়তা

কিশলয় বালিকা স্কুলে দুর্নীতি বিরোধী বির্তক প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভা

প্রবাসীদের আত্মকথা

সৈকত আবাসিক এলাকার প্লট অ-আবাসিক/বাণিজ্যিক অনুমতি নীতিমালা প্রণয়ন সভা

প্রচন্ড দাবদাহে জনজীবনে নাভিশ্বাস

কক্সবাজারে পালিত হচ্ছে বিশ্ব টিকাদান সপ্তাহ

রামুতে পালিত হয়েছে বিশ্ব ম্যালেরিয়া দিবস

অপসংস্কৃতির বিষাক্ত ছোবলে যুবসমাজের নৈতিকতার অবক্ষয়

চকরিয়ায় প্রধান শিক্ষকের অপসারণ দাবিতে শিক্ষার্থীদের স্কুলে তালা : ক্লাস বর্জন

মসজিদের বিদ্যুৎ বিল বকেয়া, নামাজের সময় সংযোগ বিচ্ছিন্ন!

শরনার্থীদের সমন্বয়ে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখায় সরকার ও জেলা প্রশাসনের প্রশংসা

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ দুর্নীতি, ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হচ্ছে

বাইশারীতে ড্রেজার মেশিন জব্দ, ইটভাটার মালিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

আজ মধ্যরাত থেকে বন্ধ হচ্ছে ২০ লাখ ৪৯ হাজার ৯৪৭টি মোবাইল সিম

কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ৫ মে

বান্দরবানের ৭ উপজেলার ২১ চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যানের শপথ