ইমরান হোসাইন, পেকুয়া:
পেকুয়া বেড়িবাঁধ রক্ষায় সৃজিত প্রায় পাঁচ হাজার গাছের চারা উপড়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে ভেস্তে গেছে ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ রক্ষার দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা।

শুক্রবার (৩ফেব্রুয়ারি) দিনগত গভীর রাতে পেকুয়া সদর ইউনিয়নের পূর্ব মেহেরনামা হাসের ঘোনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে আগামী বর্ষা মৌসুমে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে পেকুয়া সদরের অন্তত পাঁচটিরও বেশি গ্রাম প্লাবিত হওয়ার আশংকা করছেন স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা জানান, মাতামুহুরি নদীর পাহাড়ি ঢলে প্রতি বর্ষা মৌসুমে মেহেরনামা এলাকার ঝুঁকিপূর্ণ এসব বেড়িবাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে ব্যাপক এলাকা প্লাবিত হয়। সরকারীভাবে সংস্কার করা হলেও অবস্থানগত কারণে প্রতি বর্ষা মৌসুমে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে বেড়িবাঁধের এসব অংশ। এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে এগিয়ে আসেন স্থানীয় কিছু যুবক। তাদের সংগঠন (মেহেরনামা যুব উন্নয়ন সংস্থা) বেড়িবাঁধের ঝুঁকিপূর্ণ এসব অংশে বিভিন্ন জাতের বৃক্ষের প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার চারা লাগায়।

মেহেরনামা যুব উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি মোঃ ইসমাইল ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুর লতিফ বলেন, অজ্ঞাত কারণে শুক্রবার রাতে শীলখালী ইউনিয়নের হাজীর ঘোনা এলাকার মনু নামের একব্যক্তির নেতৃত্ব ১৫-২০জন দুর্বৃত্ত রাতের আধারে সংগঠনের লাগানো প্রায় পাঁচ হাজার গাছের চারা উপড়ে এবং ভেঙ্গে বিনষ্ট করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে স্থানীয় ইউপি সদস্য রিদুয়ান বলেন, শত্রুতা থাকলে মানুষে মানুষে। কিন্তু গাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা। গাছের চারা গুলো লাগানো হয়েছিল এলাকাবাসীর স্বার্থে। এব্যাপারে আমি সংগঠনের নেতাদের আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছি।

পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মনজুর কাদের মজুমদার বলেন, বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •