রেজাউল করিম:

জনপ্রিয় ইউটিউবার, মীরাক্কেল স্টার, হা-শোর স্টার, বলছি তৌহিদ এর কথা পুরো নাম মনোয়ারুল ইসলাম তৌহিদ। মায়ের মুখে হাসি ফুটাতে গিয়ে বনে যান একজন কমেডিয়ান। কোন দিন তিনি ভাবতেও পারেননি যে স্বপ্ন মীরাক্কেল পর্যন্ত তিনি আসতে পারবেন বা হতে পারবেন সবার চোখের মনি। মরহুম মোঃ তাজুল ইসলাম মানিকগঞ্জ সরকারী বালক উচ্চবিদ্যালয় ও মানিকগঞ্জ মডেল হাইস্কুলের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক। এবং মরহুমা মনোয়ারা পারভীন এর তিন সন্তানের মধ্যে সবার ছোট ছেলে
যে এভাবে নাম কুড়াবে হয়তো তারাও ভাবতে পারেননি।
মানিকগঞ্জ জেলায় জন্ম নেয়া তৌহিদের বাল্যকাল কাটে মানিকগঞ্জেই। তবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে ভর্তি হওয়ার পর থেকে ঢাকায় থাকেন। নিতান্ত শখের বসে তিনি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম স্ট্যান্ডআপ কমেডি রিয়েলিটি শো “হা-শোতে (এনটিভি) পারফর্ম দিয়ে মুলত শুরু তার পথচলা। এরপর মিরাক্কেল-৮ পারফর্মার। তার মুখ থেকে শুনতে চাইলে তিনি বলেন, ২০০৯ সালের ৯ ডিসেন্বর বাবা স্ট্রোক করে মারা যাবার পর মায়ের মুখে হাসি ফোটানোই ছিল মূল লক্ষ্য। কারন আমি বিশ্বাস করি কষ্টই মুলত আনন্দের প্রধান উৎস। ২০১১ সালে মীরাক্কেলে বাংলাদেশের পারফর্মারদের নৈপুণ্য দেখে মায়ের মুখে হাসি দেখে তখনই মনে মনে সিদ্ধান্ত নিই এখানে যাবার। পরবর্তীতে বাংলাদেশে হা-শো নামক একটি রিয়েলিটি শো তে অংশগ্রহণ করেই স্ট্যান্ডআপ কমেডি জগতে পদচারনা।
মিরাক্কেল-৮ অডিশন দিয়ে টিকে যাবার কয়েক দিনের মাথায় রোড এক্সিডেন্টে মা-কে হারাই।
আর এভাবেই শুরু হয় নতুন পথছলা। আর জড়িয়ে পড়েন এক নতুন যুদ্ধে। মীরাক্কেলে যাবার ইচ্ছেটাও নষ্ট হয়ে যায় তার । তবে কাছের কিছু বড় ভাইয়ের পরামর্শে এবং উৎসাহে তিনি মিরাক্কেল পারফর্ম করা। লেখাপড়া শেষে মিডিয়াতে কাজ করছে সে। বর্তমানে
বাংলাদেশে স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ানদের সর্ববৃহৎ সংগঠন বুনো পায়রার একজন কমেডিয়ান ও বুনো পায়রা ইউটিউব চ্যানলে জনপ্রিয় স্টার। তাকে ছাড়া বুনো পায়রা ইউটিউব চ্যানেল চিন্তাও করা যায় না। ইউটিউব খুব কম সময়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন, দর্শকদের কাছে পেয়েছে গ্যাঞ্জাম ভাই খ্যাত । আর পাশাপাশি টেলিভশন কাজ করে যাচ্ছেন। জীবন চলার পথে সকল কষ্ট গুলোকে তিনি আনন্দে রুপ দিয়ে হাসেন এবং হাসান সবাইকে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •