চট্টগ্রামে শতাধিক কিশোর গ্যাং

ডেস্ক নিউজ:
চট্টগ্রাম মহানগরের ১৬ এলাকায় শতাধিক কিশোর গ্যাং গ্রুপ গজিয়ে উঠেছে। মঙ্গলবার কলেজিয়েট স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র আদনান ইসফার খুন হওয়ার পর এই গ্রুপগুলোর নাম উচ্চারিত হচ্ছে। ফলে পুলিশও এদের তালিকা তৈরিতে নেমেছে। চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের (সিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) সালেহ মোহাম্মদ তানভির জানান, নগরের কিশোর গ্যাং গ্রুপগুলোর তালিকা তৈরি করতে প্রত্যেক থানা পুলিশকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, দ্রুত সময়ের মধ্যে তালিকা তৈরি হবে। এরপর কিশোর গ্যাং গ্রুপ নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমাদের জনবল কম থাকায় স্কুল পর্যায়ে কাজ করা সম্ভব নয়। তাই কমিউনিটি পুলিশিং ও অভিভাবকদের সচেতন করে কিশোরদের মধ্যে অপরাধপ্রবণতা কমানোর উদ্যোগ নেওয়া হবে।’ নাম প্রকাশ না করার শর্তে সিএমপির এক কর্মকর্তা বলেন, ‘চট্টগ্রাম নগরের ১৬ থানা এলাকায় শতাধিক কিশোর গ্যাং গ্রুপ রয়েছে। এসব গ্রুপ গঠনে ভূমিকা পালন করছেন ছাত্র সংগঠনের নেতারা। এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে গেলে ছাত্র সংগঠনের নেতা ছাড়াও অনেক সিনিয়র নেতা ফোন করে বসেন। তাই পুলিশ এত দিন গ্যাং গ্রুপের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারেনি।’ খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারে উত্থান হয়েছে এসব গ্যাং গ্রুপের। চট্টগ্রামে গ্যাং গ্রুপের শুরু হয় জামাল খান এলাকাকেন্দ্রিক। পরে তা নগরের বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। প্রতিটি স্কুল ও কলেজে একাধিক গ্যাং গ্রুপ রয়েছে। এমনকি স্কুলে শ্রেণিভিত্তিক ও এলাকাকেন্দ্রিক গ্রুপও রয়েছে। খেলা কিংবা অন্যান্য বিষয়ে পান থেকে চুন খসলেই এরা নিজেদের মধ্যে সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন ধরনের মাদক ও অবৈধ অস্ত্র ব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে গ্রুপগুলোর বিরুদ্ধে। কিছু কিছু গ্রুপের বিরুদ্ধে ইভ টিজিং ও ছিনতাইয়ের অভিযোগ রয়েছে। এরা সামান্য কোনো বিষয় নিয়েও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে এবং হতাহতের ঘটনা ঘটায়। বোমাবাজিসহ নানা ধরনের সন্ত্রাসে এরা পারদর্শী হয়ে উঠেছে।

সর্বশেষ সংবাদ

২০২২ সালের মধ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বোর্ড গঠন

এমপিদের শপথের বৈধতা নিয়ে রিট খারিজ

রাখাইনের মংডুতে তিন আদিবাসীর মৃতদেহ উদ্ধার

রোহিঙ্গাদের চাপে পানের দাম চড়া

পুলওয়ামায় ফের জঙ্গি হামলায় ৪ সেনা নিহত

প্রধানমন্ত্রীর কাছে মহেশখালীর ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের ৮ দাবি

বাংলাদেশ-আমিরাত চারটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর

কক্সবাজার সদরে এসিল্যান্ড শূন্যতায় ভোগান্তি

পুনর্বাসন চায় মহেশখালীর মানুষ

‘নিয়ম ছিল না বলেই বদি আমন্ত্রণ পাননি’

দায়িত্বশীল ছাড়া কারও ডাকে সাড়া নয়

দেশের কোন গোয়েন্দা সংস্থার কী কাজ

কাশ্মিরে নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর আবারও হামলা, সেনা কর্মকর্তাসহ নিহত ৬

ই-ফাইলিং এ কক্সবাজার জেলা প্রশাসন সারাদেশে দ্বিতীয়

নাফে মাছ ধরার অনুমতি ও ইয়াবা বন্ধে সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দিন : এমপি শাহীন আক্তার

সিবিএন এর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে সৌদি প্রবাসী বিএনপি নেতা ফরিদের শুভেচ্ছা

এমপি বদি’র সাথে ইউএই টেকনাফ সমিতি’র সৌজন্য সাক্ষাৎ

চাকরিচ্যুতির ভয় দেখিয়ে উপজাতি এনজিও কর্মীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ 

বন্ধ হলো অনলাইনে জুয়া খেলার ১৭৬ সাইট

শাজাহান খানকে সংসদে বেশি কথা বলতে দেয়ায় প্রতিবাদ