বান্দরবানে কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি’র অবস্থান কর্মসূচি

মো. নুরুল করিম আরমান, লামা প্রতিনিধি:

চাকুরি জাতীয়করণের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন শুরু করেছে বান্দরবানের লামা উপজেলায় কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মরত কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডাররা (সিএইচসিপি)। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রাঙ্গনে বাংলাদেশ সিএইচসিপি অ্যাসোসিয়েশস উপজেলা শাখার আয়োজনে তারা শনিবার সকাল ৯টা থেকে এ অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন। অবস্থান কর্মসূচি চলবে ২০ জানুয়ারী থেকে ২২ জানুয়ারী প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত। অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছে উপজেলার ২৬টি কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপিরা। অবিলম্বে তাদের চাকরি জাতীয়করণ না করা হলে ২৪, ২৫ ও ২৬ জানুয়ারী কর্মবিরতি পালনের পর কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারিও দেন তারা। এদিকে কর্মসূচী পালনের কারণে কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পড়েছে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা রোগীরা।

জানা যায়, আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান কমিউনিটি ক্লিনিক হতে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের গ্রামীণ জনগোষ্ঠির স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করণে কাজ করছে। এতে গর্ভবর্তী মায়ের সেবা, শিশু স্বাস্থ্য, স্বাভাবিক প্রসব করানো, সাধারণ রোগের চিকিৎসা সেবাসহ রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে স্বাস্থ্য শিক্ষাও প্রদান করা হয়। এছাড়া দুর্গম এলাকায় মেডিকেল টিম হিসেবে বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় কাজ করে কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডাররা (সিএইচসিপি)। পাশাপাশি গর্ভবর্তী মহিলাদের ও শিশুদের অনলাইনে রেজিষ্ট্রেশন, ই-হেলথ সেবা দিচ্ছে তারা। কিন্তু এখনো চাকুরী জাতীয়করণ না হওয়ায় তারা হতাশায় ভূগছেন।

কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশনের লামা উপজেলা সভাপতি আবদুস সালাম জানান, ২০১১ সাল থেকে একই বেতনে কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রোভাইডাররা (সিএইচসিপি) প্রকল্পের অধীনে কাজ করছে। সরকার ২০১৩ সালে তাদের চাকরি রাজস্বখাতে অন্তর্ভূক্ত করার উদ্যোগ নিয়ে চিঠি প্রদান করলেও তা আজও বাস্তবায়িত হয়নি। তারা বলেন, চাকরি জাতীয়করণ না হওয়া পর্যন্ত কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন। তারা ২৩ জানুয়ারী বান্দরবান জেলা প্রশাসক, জেলা পরিষদ ও সিভিল সার্জনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারক লিপি প্রদান করে ২৭ জানুয়ারী বান্দরবান জেলা প্রেসক্লাবে অবস্থান করবেন। ৩১ জানুয়ারীর মধ্যে এ দাবী বাস্তবায়ন করা না হলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আমরণ অনশন কর্মসূচী পালন করা হবে বলেও জানান তারা। ইয়াংছা কমিউনিটি ক্লিনিকের হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার উম্মে হায়াত আরজু বলেন, একাধিকবার চিঠি আসার পরও অজ্ঞাত কারণে চাকুরী জাতীয়করণ করা হচ্ছেনা। ইতিমধ্যে আমাদের চাকুরীর বয়সও শেষ হয়ে যাচ্ছে। তাই আমাদের দাবী দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য সরকারের নিকট জোর দাবী জানাচ্ছি। একই দাবীতে ও একই কর্মসূচী পালনের মধ্য দিয়ে আলীকদম উপজেলাসহ বান্দরবানের ৭টি ইউনিয়নেও সারা দেশের ন্যায় এক যোগে অবস্থান কর্মসূচী পালন করছেন বলে জানিয়েছেন বান্দরবান জেলা সিএইচসিপি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মাসুদ খান।

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রামে এবার হাজতির কাছে মিললো ৩৫০ পিস ইয়াবা

একটি সাদা কাফনের সফর নামা – (৫ম পর্ব)

একসঙ্গে ৩ বোন উধাও

যেভাবে গ্রেফতার হলেন দাড়ি-গোঁফওয়ালা ওসি মোয়াজ্জেম

ভারতের কাছে পাত্তাই পেলো না পাকিস্তান

কতদূর এগোলো জামায়াতের নতুন সংগঠনের কাজ?

বাহারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

ঈদগাঁও নদীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে ব্যারিস্টার আজিমের আইনি নোটিশ

চকরিয়ায় এক মাসে ৭ খুন

ভারুয়াখালী ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের কমিটি গঠিত

চুমু দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর ইনফেকশন চিকিৎসা!

এনজিও চাকরির মেলা নিয়ে প্রশাসনের ধোয়াসা, হতাশ স্থানিয়রা

সাংবাদিক রাশেদের উপর হামলার তীব্র নিন্দা : অবিলম্বে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করুন

কক্সবাজার জেলা কারাগারে দুর্নীতির প্রমাণ পেয়েছে দুদক 

আমার প্যারালাইজড আক্রান্ত বাবা

ঈদগড়ে উদ্ধার লাশ কক্সবাজার পৌরসভার কাউন্সিলর প্রার্থী রফিকের

রামুতে সংখ্যালঘু পরিবারের দোকান জবর-দখলের অভিযোগ

পিতা-মাতার পরকীয়ায় দু’কূল হারালো তিন শিশু!

বন্দুকযুদ্ধে নাইক্ষ‌্যংছড়ি ছাত্রলীগ নেতা সৌরভ নিহত

হ্নীলায় ইয়াবা ব্যবসায়ী জালালের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী