ইমাম খাইর, সিবিএন:
কক্সবাজার শহরের গোলদীঘির পাড়ে একই পরিবারে ৪ জনের আত্নহত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

নিহতরা হলো- ওই এলাকার মৃত ননী গোপাল চৌধুরীর ছেলে সুমন চৌধুরী (৪০), সুমনের স্ত্রী বেবি চৌধুরী (২৮) এবং তাদের স্কুল পড়ুয়া দু’মেয়ে অবন্তিকা চৌধুরী ও জ্যুতি চৌধুরী।

বুধবার (১৭ জানুয়ারী) সন্ধ্যায় বাসা থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি রনজিত কুমার বড়ুয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, প্রথমে দুই সন্তান ও স্ত্রীর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এরপর স্বামী সুমন চৌধুরী আত্নহত্যা করে। অনেকে ঘটনাটি রহস্যজনক মনে করছে। তদন্ত করলে আসল রহস্য বের হবে।

ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় সুমন চৌধুরীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বিছানায় শায়িত অবস্থায় দুই সন্তানের সাথে বেবি চৌধুরীর লাশ পাওয়া যায়। নিহতদের মরদেহ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সুমন চৌধুরী কসমেটিকস এর দোকান করতো। দেনা পাওনার টেনশন থেকে সে ঘটনাটি ঘটাতে পারে বলে ধারণা করছে এলাকাবাসী।

খবর পেয়ে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, পৌরসভার মেয়র (ভারপ্রাপ্ত) মাহবুবুর রহমানসহ স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে ছুটে যান।

নিহত সুমন চৌধুরীর বন্ধু রংমেস্ত্রি দিলীপ জানায়, বিকাল ৫ টার দিকে সুমনকে অনেকবার ফোন করে না পাওয়ায় বাসায় গিয়ে দেখে দরজা জানালা সব বন্ধ। পরে জানালা দিয়ে দেখে, বাড়ীর ভেতর সব লাশ।ফ্যানের সাথে ঝুলছে বন্ধু সুমনের লাশ। পরে তিনি এলাকাবাসীকে খবর দিলে সবাই ছুটে যায়।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাজ বিহারী দাশসহ স্বজনেরা লাশ উদ্ধার করে।

 

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •