আবুল আলী, টেকনাফ:

সেন্টমার্টিন থেকে টেকনাফে ফেরার সময় ‘এলসিটি কাজল’ নামের একটি জাহাজের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়েছে। বিকেল সাড়ে চারটার পর থেকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ট জাহাজটি বঙ্গোপসাগরে ভাসছিল। ওই জাহাজে ২৫০ জনের বেশি পর্যটক রয়েছেন। জোয়ারের পানিয়ে ভাসিয়ে নিয়ে যাচ্ছে জাহাজটি মিয়ানমারের জল সীমানায়। সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জাহাজটি সচল করা সম্ভব হয়নি।

জাহাজে আটকাপড়া যাত্রীদের মধ্যে সওয়ার কামাল (মানিক) নামে একজন মোবাইল ফোনে জানান, জাহাজে থাকা যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। জাহাজটি ভাসতে ভাসতে মিয়ানমারের দিকে চলে যাচ্ছে।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহিদ হোসেন সিদ্দিকী বলেন, সোমবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে সেন্টমার্টিন থেকে পর্যটক নিয়ে ফেরার সময় বিকেল সাড়ে চারটার দিকে নাফ নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনার একটু আগে জাহাজটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। পরে জাহাজ কর্তৃপক্ষ সেটি পুনরায় চালানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। যে এলাকা দিয়ে জাহাজটি আসবে সেটি মিয়ানমার জলসীমানায়। তাই পর্যটকেরা যাতে আতঙ্কিত না হয় তাই সেখানে কোস্টগার্ড রয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জাহাজটি ওই এলাকায় অবস্থান করায় টেকনাফ থেকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) প্রণয় চাকমার নেতৃত্বে অপর একটি জাহাজ এলসিটি কুতুবদিয়াকে যাত্রীদের উদ্ধার করতে পাঠানো হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরও বলেন, পর্যটক উদ্ধার হওয়ার পর জাহাজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। উদ্ধার হলে তাদের টেকনাফে দমদমিয়া ঘাটে আনা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •