সিবিএন:
রোহিঙ্গাদের জন্য দেয়া ত্রাণ বিতরণে নয়টি এনজিওর বিরুদ্ধে বাণিজ্যের প্রমাণ পাওয়া গেছে। এসব এনজিও খোলাবাজার থেকে কম দামে পণ্য কিনে প্যাকেটে ভরে বেশি খরচ দেখিয়েছে। এর ফলে রোহিঙ্গাদের জন্য বিদেশ থেকে আসা অর্থ গেছে এনজিওগুলোর পকেটে।
এছাড়া এখতিয়ারবহির্ভূত কার্যক্রম চালুর সত্যতা পেয়েছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়। তাই এসব এনজিওকে বাণিজ্যের বিষয়ে ব্যাখ্যা দেয়ার জন্য গত ১০ জানুয়ারি চিঠি দিয়েছে এনজিওবিষয়ক ব্যুরো। সাত কর্মদিবসের মধ্যে চিঠির জবাব দিতে বলা হয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও এনজিওবিষয়ক ব্যুরো সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।
সূত্র জানায়, সম্প্রতি কক্সবাজারের জেলা প্রসাশক মো. আলী হোসেন এ নয়টি এনজিওর নানা অনিয়ম সংবলিত একটি প্রতিবেদন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব বরাবর পাঠান। একই সঙ্গে এসব এজিওর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানান।
ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী নয়টি এনজিও হলো- অগ্রযাত্রা বাংলাদেশ, কাতার চ্যারিটি, আল্লামা ফজলুল্লাহ ফাউন্ডেশন, সোশ্যাল অ্যাজেন্সি ফর ওয়েলফেয়ার অ্যান্ড অ্যাডভান্সমেন্ট ইন বাংলাদেশ (ছওয়াব), প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ, নেটওয়ার্ক ফর ইউনিভার্সেল সার্ভিসেস অ্যান্ড রুরাল অ্যাডভান্সমেন্ট (নুসরা), দুস্থ স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ইউনাইটেড সোশ্যাল অ্যাডভান্সমেন্ট (ঊষা) এবং সেভ দ্য চিলড্রেন ইন্টারন্যাশনাল।
সূত্র: জাগো নিউজ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •