নুসরাত পাইরিন :

বায়তুশ শরফের জব্বারিয়া একাডেমির মিলনায়তনে ১৪ জানুয়ারি বিকাল ৩টায় শহর সমাজ উন্নয়ন প্রকল্প পরিষদ কর্তৃক পরিচালিত দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ৪৬ তম ব্যাচের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শহর সমাজ উন্নয়ন প্রকল্প পরিষদের সভাপতি শিক্ষাবিদ এম.এম. সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক প্রীতম কুমার চৌধুরী।

প্রধান অতিথি বলেন, আমাদের এই মাতৃভূমিকে আইটি বিশ্বে এগিয়ে নিতে সকলের নির্দিষ্ট ভিশন বা লক্ষ্য থাকা খুবই জরুরী। এই ভিশনকে বাস্তবায়ন করতে প্রয়োজন সঠিক প্রশিক্ষণের। আর প্রশিক্ষণের পর প্রয়োজন তার যথোপযুক্ত ব্যবহার। এভাবেই একজন মানুষ স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে পারেন।

৪৬তম ব্যাচ জানুয়ারী-মার্চ সেশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রশিক্ষনার্থীদের উদ্দেশ্যে প্রকল্প পরিষদের সভাপতি শিক্ষাবিদ এম.এম. সিরাজুল ইসলাম বলেন, আগামীতে যারা তথ্য প্রযুক্তি ও কম্পিউটার শিক্ষা থেকে পিছিয়ে থাকবে তারা জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই ব্যর্থ হবে। কম্পিউটার শিক্ষা ছাড়া পুঁথিগত বিদ্যা তেমন কোন কাজে আসবে না। একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি আইটি ও কম্পিউটার শিক্ষায় পারদর্শী না হলে সে জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই পিছিয়ে পড়বে। দেশে কর্মমুখী শিক্ষায় শিক্ষিত করে লোকবল গড়ে তুলে জনশক্তি রপ্তানী করে দেশে বিপুল পরিমান বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করার বিপুল সুযোগ রয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, সমাজসেবা অফিসার কাউসার পারভীন, ইঞ্জিঃ কানন পাল, অধ্যাপক আবুল কালাম, ইমতিয়াজ হাসান, অভিভাবকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর এর সম্পাদক বেলাল উদ্দিন, মোঃ ইলিয়াস, প্রশিক্ষনার্থীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন সানজিন ইসলাম, সাজ্জাদ হোসাইন, নাহিদা ইসলাম, নাজমা আকতার, জিহাদ, শাকিব ও মোঃ তারেক আজিজ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন প্রধান প্রশিক্ষক পিন্টু দত্ত। এ সময় অন্যান্যদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন কম্পিউটার প্রশিক্ষক ফারুক আজম, শাহাব উদ্দিন, রথিন দাশ ও মিজানুর রহমান সহ শতাধিক প্রশিক্ষনার্থী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •