হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ  :

ব্যাটারী রাখার বক্সের ভেতর অভিনব কৌশলে লুকিয়ে টমটম যোগে পাচারকালে ৩৬ লক্ষ ৩০ হাজার ৭০০ টাকা মুল্যের ১১ হাজার ৭৬৯ পিস ইয়াবা আটক করেছে বিজিবি। তবে টমটম চালক ও ইয়াবা পাচারকারীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে বলে জানা গেছে। এসময় টমটমটিও জব্দ করা হয়েছে। অজ্ঞাত ইজিবাইকের চালকের বিরুদ্ধে টেকনাফ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করতঃ আটককৃত ইজিবাইক এবং উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেট টেকনাফ থানায় জমা করা হয়েছে।

লেঃ কর্ণেল এসএম আরিফুল ইসলাম টেকনাফ-২ বিজিবি’র পরিচালক অধিনায়ক জানান ‘গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে জানা যায় টেকনাফ-কক্সবাজার মেরিন ড্রাইভ রাস্তার জাহাজপুরা এলাকা দিয়ে ইজিবাইক যোগে ইয়াবার একটি চালান কক্সবাজার গমণ করতে পারে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে ১৪ জানুয়ারি দুপুর ১২টায় ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ শীলখালী অস্থায়ী চেকপোষ্টে কর্মরত হাবিলদার মোঃ ছদর উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি বিশেষ টহল দল বর্ণিত এলাকায় গমন করতঃ রাস্তার পার্শ্বে ওঁৎ পেতে থাকে। এসময় টেকনাফ হতে কক্সবাজারগামী একটি ইজিবাইক মেরিন ড্রাইভ রাস্তা দিয়ে জাহাজপুরা এলাকায় পৌঁছলে টহলদল ইজিবাইকটি থামানোর জন্য সংকেত দেয়। বিজিবি টহল দলের সংকেত দেয়া মাত্রই চালক ইজিবাইকটি থামিয়ে দুইজন যাত্রীসহ অতিদ্রুত দৌড়ে পার্শ্ববর্তী গ্রামের ভেতর পালিয়ে যায়। অতঃপর টহল দল ইজিবাইকটি তল্লাশী করে ব্যাটারী রাখার বক্সের ভেতর অভিনব কৌশলে লুকায়িত অবস্থায় ৩৫ লক্ষ ৩০ হাজার ৭০০ টাকা মূল্যমানের ১১ হাজার ৭৬৯ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং ১ লক্ষ টাকা মূল্যমানের ১টি ইজিবাইক আটক করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে অজ্ঞাত ইজিবাইকের চালকের বিরুদ্ধে টেকনাফ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করতঃ আটককৃত ইজিবাইক এবং উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেট টেকনাফ থানায় জমা করা হয়েছে’।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •