শাহনেওয়াজ জিল্লু ॥

শহরের কলাতলীর দক্ষিণ আদর্শগ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বাসগৃহে অগ্নিসংযোগের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অগ্নিকান্ডে বাসগৃহ, ঘরের ভেতরে থাকা সমস্ত আসবাবপত্র, স্বর্ণালঙ্কার ও নগদটাকাসহ কমপক্ষে ৩লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে ভোক্তভোগী পরিবার। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারটির ধারণা পূর্ব শত্রুতার জের ধরেই এঘটনা ঘটিয়েছে পাশ্ববর্তী প্রতিবেশীরা। ১২ জানুয়ারী জুমাবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এঘটনা ঘটে। ঘটনার কয়েক ঘন্টা পর কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

অগ্নিকান্ডে পুড়ে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্থ বাড়ির মালিক নাজিম উদ্দিন জানিয়েছেন, বিগত বেশ কিছুদিন ধরে কতিপয় অযাচিত যুবক আমার বাড়িটির পাহারাদার পরিবারটিকে বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে হুমকি দিতে থাকে। আমার ধারণা তারাই এঘটনাটি ঘটিয়েছে। পূর্ব থেকে ওঁত পেতে থাকা এসব কুচক্রিরা বাড়িতে পাহারাদারের অনুপস্থিতি নিশ্চিত হয়েই ঘরে অগ্নিসংযোগ করেছে।

ক্ষতিগ্রস্থ বাড়িটির পাহারাদার পরিবারের কর্তা রাজু মিয়া জানিয়েছে, সে একজন ইলেক্ট্রিক মেস্ত্রী এবং উক্ত বাড়িটিতে বিগত ১০ বৎসর যাবত পাহারাদার হিসেবে বসবাস করে আসছে। অগ্নিকান্ডের সময় তার স্ত্রী পাশ্ববর্তী তার মায়ের বাড়িতে অবস্থান করছিলো। এইসুযোগে কে বা কারা তার বাসগৃহে অগ্নিসংযোগ করেছে। সে আরোও জানায়, সম্প্রতি কতিপয় অজ্ঞাত যুবক তার পরিবারসহ সেখান থেকে চলে যেতে নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় অজ্ঞাত যুবকেরা উক্ত অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে। এঘটনায় তার সমস্ত সহায় সম্পদ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে বলে জানিয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, অগ্নিকান্ডে নির্মিত বাসগৃহ, ঘরে থাকা পুর্ণাঙ্গ আসবাবপত্র, টিভি, ফ্রিজ, ফ্যান, ও যাবতীয় গৃহ সামগ্রী নগদ টাকা এবং স্বর্ণ অলংকার পুড়ে ভস্মিভূত হয়ে গেছে।

এব্যাপারে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রণজিত বড়–য়া বিষয়টি অবগত আছেন বলে জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •