ফরিদুল আলম দেওয়ান, মহেশখালী:

মহেশখালী চ্যানেলে ৮ জানুয়ারি সোমবার ১১ জন পর্যটকবাহী স্পীড বোট দুর্ঘটনায় নিখোঁজ স্পীডবোট  চালক মোঃ অানাস প্রকাশ অানিসেরর লাশ দূর্ঘটনার ৫দিন পর গতকাল ১২ জানুয়ারি শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টায় উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের পারিবারিক উদ্যোগে অাত্নীয় স্বজনগত ৫ দিন ধরে মহেশখালী,বাঁকখালী ও সোনাদিয়া চ্যানেল সহ অাশে পাশের সাগরে ট্রলার নিয়ে তল্লাশী চালিয়ে অাসলেও কোথাও অানাসের লাশের সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। কিন্তু গতকাল শুক্রবার ৫ দিনের মাথায় খরস্রোতা জোয়ার ভাটার নদী বাঁকখালী ও মহেশখালী চ্যানেলের মোহনায় দূর্ঘটনাস্থলেই লাশটি ভেসে উঠে বলে জানা গেছে। আনাসের লাশ উদ্ধারের এ ঘটনাকেও এলাকাবাসীরা বরাবরের মত অলৌকিক রহস্যে ঘেরা বলে মন্তব্য করছেন। কেননা মহেশখালী- ককস বাজার নদী পথের বাঁকখালীর ও মোহনায় এ পর্যন্ত যত নৌদূর্ঘটনা ঘটেছে সব কটিতেই ঘটনার ৩ থেকে ৫ দিন পরে অলৌখিক ভাবে দূর্ঘটনাস্থলের খরস্রোতা নদীর পানির নীচ হতে লাশ ভেসে উঠে। উল্লেখ্য একই স্থান হতে মহেশখালী- কুতুবদিয়ার বর্তমান সাংসদ অালহাজ্ব অাশেক উল্লাহ রফিকের পিতা মরহুম এডভোকেট রফিক উল্লাহ’র মৃত দেহ সহ গত কয়েক মাস পূর্বে স্পীড বোট দূর্ঘটনায় ছোট শিশুর লাশ উদ্ধারও একই ধরণের রহস্য ময়তার জন্ম দেয়। স্থানীয় ভাবে জনশ্রুতি রয়েছে, বাঁকখালী নদীর ওই মোহনায় যুগ যুগ ধরে দূর্ঘটনায় প্রাণহানীর ঘটনা ঘটায় ওই স্থানকে স্থানীয় ভাবে ” দেওতলীর দৈর্গা” অর্থাৎ দৈত্য দানবের দরিয়া নামে অভিহিত করে অাসছিল। ওই স্থানের যত সব দূর্ঘটনাকে লোকজন স্থানীয় ভাষায় ঢালী ( বিসর্জন অর্থে) নেয়া হিসেবে ধরণা করে থাকে। তাই সাগরে থাকা দৈত্যের ইচ্ছা মাফিক নির্দিষ্ট সময়ের পরে লাশটি ছেড়ে দেয় বলে কথিত মতবাদ রয়েছে।
এদিকে দূর্ঘটনার ৫দিন পর প্রচন্ড স্রোতের নদী বাঁকখালীর ওই মোহনায় স্পীড বোট ড্রাইভার অানাসের লাশ উদ্ধার হওয়াকে এলাকাবাসী পূর্বের সব ঘটনার মত রহস্যময় বলে মনে করছেন। অানাসের মরদেহ গতকাল জুমার নামাজের পর মহেশখালীর গোরকঘাটা অাল জামেয়াতুল অাশরাফিয়া মাদ্রাসার মাঠে জানাযা শেষে দাফন করা হয়। জানাযায় মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আবুল কালাম উপস্থিত ছিলেন।
নিখোঁজ চালক অানাস মহেশখালী পৌরসভার চর পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক মৌঃ জমির উদ্দিনের পুত্র। তার ৭ মাস বয়সি একমাত্র পুত্র সন্তান ও স্ত্রী রয়েছে। উল্লেখ্য, গত ৮জানুয়ারি ১১জন যাত্রী নিয়ে বাঁকখালী নদীতে ড্রেজিং কাজে নোঙ্গর করা ড্রেজার ট্রলির রশিতে আটকে একটি স্পীড বোট দূর্ঘটনায় পতিত  পতিত হয়। খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক কোস্টগার্ড, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী ও স্থানীয় জেলেরা উদ্ধার অভিযান চালিয়ে ১১ যাত্রীকে অাহত অবস্থায় উদ্ধার করতে সক্ষম হলেও চালক আনাস নিখোঁজ ছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •