সোয়েব সাঈদ:
৩দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে ৮বছর বয়সী শিশু দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র মেহেদী হাসান। চারমাস আগের নিখোঁজ হয়েছিলো তার বড় ভাই আবু বক্কর ছিদ্দিক (১৪)। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার আদর্শ গ্রাম এলাকায় নানার বাড়িতে বেড়াতে এসে এভাবে একে একে নিখোঁজ হয়েছে তারা। নিখোঁজ দুই সহোদর পার্বত্য বান্দরবানের বালাঘাটা এলাকার রিক্সাচালক মো. রফিক ও গৃহিনী আমিনা বেগমের ছেলে। দুই সন্তানের সন্ধান না পেয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন শিশুদুটির বাবা-মা ও স্বজনরা।
এদের মা আমিনা বেগম জানান, সম্প্রতি তিনি নাইক্ষ্যংছড়ি আদর্শ গ্রামে বাপের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। গত রবিবার (৭ জানুয়ারি) সকাল থেকে তাঁর সাথে আসা ছোট ছেলে মেহেদী হাসান নিখোঁজ হয়ে যায়। পাড়া-প্রতিবেশী ও স্বজনদের বাড়িতে খোঁজাখুজি করেও মেহেদী হাসানের সন্ধান মিলেনি। মেহেদী হাসান বান্দরবানের বালাঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র। নিখোঁজ হওয়ার সময় মেহেদী হাসানের পরনে ছিলো একটি শীতের গেঞ্জি ও জিনসের কোয়ার্টার প্যান্ট। সে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলে।
আমিনা বেগম আরো জানান, এ ঘটনার চারমাস আগে বাপের বাড়িতে এভাবে বেড়াতে এলে নিখোঁজ হন বড় ছেলে আবু বক্কর ছিদ্দিক। কাঠ মিস্ত্রীর সহকারি হিসেবে কাজ করতো ছিদ্দিক। নিখোঁজ হওয়ার চারমাসেও সন্ধান মিলেনি তার। পরপর দুই ছেলে নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় পরিবারটিতে নেমে এসেছে শোকাবহ ও আবেগঘন পরিবেশ। এ নিয়ে এলাকাজুড়ে চলছে উদ্বেগ্ন-উৎকন্ঠা।
নিখোঁজ শিশু মেহেদী হাসান ও আবু বক্কর ছিদ্দিকের সন্ধান পেলে যোগাযোগ করার অনুরোধ জানিয়েছেন পরিবারের সদস্যরা। যোগাযোগ : মোবাইল ফোন নাম্বার ০১৮২০৪২৪৭৬৭ এবং ০১৮৫৪৪৩১০৫৩। জানা গেছে, রিক্সাচালক মো. রফিক ও গৃহিনী আমিনা বেগমের চার ছেলে রয়েছে। এরমধ্যে নিখোঁজ হওয়া মেহেদী হাসান তৃতীয় এবং আবু বক্কর ছিদ্দিক চতুর্থ সন্তান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •