ইমাম খাইর, সিবিএন:
কক্সবাজার সদরের খরুলিয়ায় অভিভাবকের উপর বর্বর নির্যাতনের ঘটনায় খরুলিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জহিরুল হকসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ভিকটিম আয়াত উল্লাহ বাদী হয়ে ৮ জানুয়ারী কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলাটি দায়ের হয়।
থানার ওসি রনজিত কুমার বড়ুয়া মামলার কথা স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, মামলায় অজ্ঞাতনামা আসামী রয়েছে ৫/৬ জন। আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে।
অন্যদিকে খরুলিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জহিরুল হককে শোকজ করতে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে নির্দেশ নিয়েছেন কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নোমান হোসেন।
খরুলিয়া কেজি এন্ড প্রি-ক্যাডেট স্কুলে ছেলে শাহরিয়ার নাফিস আবির এর ফলাফল জানতে গিয়ে রবিবার (৭ জানুয়ারী) সকাল ১০টায় শিক্ষকদের হাতে ন্যাক্কারজনক নির্যাতনের শিকার হন অভিভাবক আয়াত উল্লাহ। ঘটনার পর থেকে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদের ঝড় উঠে পুরো এলাকায়। তোলপাড় হয় বিভিন্ন গণমাধ্যম। নির্যাতনের ছবি ও ভিডিও ভাইরাল হয় বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। আয়াত উল্লাহ কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা খরুলিয়া ঘাটপাড়া এলাকার মাওলানা কবির আহমদের ছেলে। তিনি পেশায় চিত্রশিল্পী। তিনি বর্তমানে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তবে, আশঙ্কামুক্ত।
ঘটনার পরে সোমবার (৮ জানুয়ারী) দুপুরে খরুলিয়া ঘাটপাড়াস্থ আয়াত উল্লাহর বাড়ীতে গিয়ে তার চিকিৎসার খোঁজ নেন কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নোমান হোসেন। স্বজনদের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর খরুলিয়া উচ্চবিদ্যালয়ে গিয়ে কথা বলেন প্রধান অভিযুক্ত শিক্ষক মাস্টার জহিরুল হক, মাস্টার বোরহান উদ্দিনের সাথে।
এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনীন সরওয়ার কাবেরী, ইউপি চেয়ারম্যান টিপু সোলতান, ইউপি সদস্য শরীফ উদ্দিনসহ স্থানীয় গন্যমাণ্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •