মহেশখালীর কাঠের জেটি ভেঙে যাত্রীরা নদীতে

হারুনর রশিদ, মহেশখালী:

মহেশখালী-কক্সবাজার জেটিঘাটের কাঠের জেটি ভেঙ্গে নদীতে পড়ে যায় এক স্কুল শিক্ষিকাসহ অনেক যাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে ৬ জানুয়ারী শনিবার বিকাল ৩ টায়। দূর্ঘনার শিকার প্রত্যক্ষদর্শী জেটি ভেঙে নদীতে পড়ে যাওয়া স্কুল শিক্ষিকা তৌহিদা আক্তার জানান, কক্সবাজারে যাওয়ার উদ্দেশ্যে মহেশখালী জেটিঘাটের কাটের অংশে শিশু সন্তানসহ আরো সহ ২০/৪০ জনের পর্যটক অবস্থান করছিল। পুর্ণ জোয়ারের সময়ে পূর্বদিক থেকে আসা একটি গাম বোট যাত্রী উঠার জন্য জেটিঘাটে নোঙ্গর করে। মুৃহুর্তের মধ্যে অবস্থানরত যাত্রীরা ঐ বোটে উঠার সময় কাঠের জেটি ভেঙে ১২/১৫ জন পর্যটক ও স্থানীয় যাত্রী নদীতে পড়ে যায়। মহেশখালীর জেটিঘাটের সম্মুখে ড্রেজিং করা গর্তে পূর্ণ জোয়ারের সময় অথৈ পানিতে ঠাঁই না পেয়ে পানিতে ডুবে গেলেও ঘাটে টুল আদায়কারী সরকারী প্রতিনিধি ও সংশ্লিষ্ট লোকজন নিরব ভূমিকায় চেয়ে থাকে। পানিতে ডুবে যাওয়া শিক্ষিকা তৌহিদা জানান, পানিতে পড়ে নিচে মাটির অংশ খুজ না পেয়ে মৃত্যু নিশ্চিৎ ভেবে কালেমা পড়েন।মুহুর্তে জেটিতে আগত এক বৃদ্ধযাত্রী নদীতে ঝাপ দিয়ে আমাকে ও অপরাপর লোকজনদেরকে উদ্ধার করে কূলে তুলে আনে। কোন মতে শিক্ষিকা সহ তার দুই মেয়ে প্রাণে রক্ষা পায়। তিনি আরো জানান উদ্ধার হওয়ার পর বিষয়টি মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ফোনে অবগত করা হয়।

বর্তমান সময়ে মহেশখালী জেটিঘাটের দূর্দশা লাঘবে ড্রেজিংএর কাজ শুরু হলেও শীতকালীন পর্যটন মৌসুমে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাজার হাজার পর্যটক মহেশখালীতে ভ্রমণে আসলেও একবার আসা লোক আগামীতে এই ঘাটের উঠা নামা,গাড়ি চালকদের অতিরিক্ত ভাড়া আদায় সহ নানা অনিয়ম অসতআাচরণের কারনে না আসার কথা শিকার করেন। সাধারণ যাত্রীদের ঘাটে উঠা নামার বিড়ম্বনা যথই বৃদ্ধিপায় প্রশাসনের কোন নিয়ন্ত্রণ নেই বলেই ভূক্তভোগিদের অভিযোগ।

বড় মহেশখালীর বাসিন্দা আব্দুল আজিজ জানান, আমলা এবং প্রভাবশালীরা জেটিঘাটে আসলে তাদেরকে জামাই আদরে ট্রলারে/স্প্রীড বোটে তুলে দেয়। দিন দিন যাত্রী সাধারণের বিড়ম্বনা শুধু বেড়েই চলেছে। সাড়ে ৪ লক্ষ মানুষসহ প্রতিদিন যুক্ত হওয়া হাজার হাজার পর্যটক দ্বীপের সাথে যোগাযোগ করতে পারাপারে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। ঘটনার চিত্র ধারণকালে দেখা যায় শত শত পর্যটক ও যাত্রী বিকাল ৫ টায় জেটি ঘাটে স্প্রীড বোট ও লোকাল যাত্রীবাহি ট্রলারের জন্য দাড়িয়ে থাকলেও মহেশখালীর প্রভাবশালীরা ও সরকারী কর্তারা তাৎক্ষনিক ভাবে দ্রুত পরিবার পরিজন নিয়ে কক্সবাজার চলে যাওয়া দৃশ্য চোখে পড়ে।

জেটিঘাটে কর্মরত একজন শ্রমিক নাম না বলার শর্তে জানান জেটি সম্মুখে ড্রেজিংএ গর্ত হওয়ায় কাটের জেটির খুটি হেলে পড়ে যায়। বিষয়টি দায়িত্বপ্রাপ্ত লোকজন ঐ কাটের জেটিতে লাল পতাকা টাঙ্গিয়ে সতর্ক সংকেত দিলে এমন দুর্ঘটনা থেকে পর্যটক ও যাত্রীরা রেহাই পেত। তাদের অব্যবস্থাপনা ও দায়িত্বহীনতার কারনে এ ভাবে নিয়মিত দূর্ঘটনা ঘটছে।

cbn
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

শাহপরীরদ্বীপে সংঘবদ্ধ চক্রের ছয় সদস্যকে আটক

উখিয়ায় জেলা প্রশাসকের কম্বল ও গৃহসামগ্রী বিতরণ

বদরখালী পৌরসভা, মাতামুহুরী হবে উপজেলা- এমপি জাফর আলম

বিজয় সমাবেশ সফল করতে কক্সবাজারে আ. লীগের প্রস্তুতি সভা

বালুখালীতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা: টাকা লুট, অস্ত্র উদ্ধার

কক্সবাজার শহরে প্রাইভেট কারে আগুন

প্রখ্যাত সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরের মৃত্যুতে সাংবাদিক ইউনিয়নর কক্সবাজার’র শোক

চকরিয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবার মানোন্নয়নে সনাক মতবিনিময় সভা

সুশাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে উন্নয়নে কক্সবাজার-রামুকে এগিয়ে নেয়া হবে- এমপি কমল

১৫ হোটেল ও রেস্তোরাঁকে দুই লাখ ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা

চকরিয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবার মাননোন্নয়নে সনাক এর মতবিনিময় সভা 

‘কাজী রাসেলকে সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় জনগণ’

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার- ১২

চকরিয়া পৌরসভায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ছয়টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্ভোধন

পেকুয়ার ইটভাটা থেকে বিদ্যালয়ে ফিরলো ১২ শিশুশ্রমিক

কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির ভবন বর্ধিতকরণে দেড় কোটি টাকা বরাদ্দ

রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে জলবসন্ত রোগের প্রাদুর্ভাব

টেকনাফে ইয়াবাসহ রামুর নুর আটক

পেকুয়া বিএনপির ১১ নেতাকর্মী কারাগারে

চবি ছাত্রের কোটি টাকা উৎস ইয়াবা ব্যবসা!