প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে অনশন ভাঙলেন নন-এমপিও শিক্ষকরা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্বাস পেয়ে অনশন ভাঙলেন দেশের নন-এমপিও শিক্ষকরা। শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) অনশন ভাঙার ঘোষণা দেন নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার। রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনশন করছিলেন এই সংগঠনের সদস্যরা।

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে প্রেসক্লাবে এসেছিলেন তার একান্ত সচিব সাজ্জাদুল হাসান। তিনি জানান, নন-এমপিও শিক্ষকদের এমপিওভুক্ত করার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। একান্ত সচিব বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আমাকে নির্দেশ দিয়েছেন, আপনাদের কাছে তার বার্তা পৌঁছে দেওয়ার জন্য। তিনি আপনাদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন, অনশন ভেঙে যার যার বাড়িতে ফিরে যান।’

শিক্ষা সচিব মো. সোহরাব হোসাইন জানান, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ নন-এমপিও শিক্ষকদের অনশনের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে এমপিওভুক্তি প্রক্রিয়া শুরু করার নির্দেশ দিয়েছেন।এরপর নন-এমপিও শিক্ষকদেরকে পানি পান করিয়ে অনশন ভাঙান শিক্ষা সচিব।অনশন ভাঙতে নন-এমপিও শিক্ষকদের পানি দিচ্ছেন শিক্ষা সচিব মো. সোহরাব হোসাইন (ছবি: বাংলা ট্রিবিউন)
নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে আমরা আনন্দিত। আমাদের বিশ্বাস ছিল, তিনি আমাদের কথা শুনবেন। তার আশ্বাসে আমরা আজ অনশন ভেঙে যার যার ফিরে যাচ্ছি।’

এমপিওভুক্তির (মান্থলি পেমেন্ট-অর্ডার) দাবিতে দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে আন্দোলন করে আসছেন নন-এমপিও শিক্ষকরা। আমরণ অনশন ও অবস্থান ধর্মঘটের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষামন্ত্রীর কাছে বিভিন্ন সময়ে স্মারকলিপি দিয়েছেন তারা। তবুও ২০১৬-১৭ আর ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটে নন-এমপিও শিক্ষকদের এমপিওভুক্তি অথবা বাড়তি ভাতার ব্যবস্থা করতে কোনও বরাদ্দ রাখা হয়নি।বক্তব্য রাখছেন শিক্ষা সচিব মো. সোহরাব হোসাইন (ছবি: বাংলা ট্রিবিউন)এ কারণে গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান নেন নন-এমপিও শিক্ষকরা। তাদেরকে ঘরে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী। কিন্তু তা প্রত্যাখ্যান করে ৩১ ডিসেম্বর থেকে আমরণ অনশন করছেন তারা।

নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের দাবি— দীর্ঘ ১০ থেকে ১৫ বছর বিনাবেতনে শিক্ষাদান কার্যক্রম চালিয়ে আসছেন তারা। এ কারণে মানবেতর জীবনযাপন করতে হচ্ছে তাদের। একইসঙ্গে ধরে রাখা যাচ্ছে না শিক্ষার মান।

নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বিনয় ভূষণ জানান, দেশের ৯৮ শতাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কলেজ ও কারিগরি মাদ্রাসা। সবই বেসরকারি ব্যবস্থাপনা নির্ভর। এর মধ্যে বিভিন্ন স্তরে পাঁচ-ছয় হাজারের বেশি স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির অপেক্ষায় আছে, যা এই স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এক-চতুর্থাংশ। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ২০ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থীকে পাঠদানের কাজে নিয়োজিত রয়েছেন ৮০ হাজারের বেশি শিক্ষক-কর্মচারী।

সর্বশেষ সংবাদ

সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের মায়ের মৃত্যুতে সদর উপজেলা চেয়ারম্যানের শোক

ওএসডি করা হচ্ছে জামালপুরের সেই ডিসিকে

যুবলীগ নেতা ফারুক হত্যায় রোহিঙ্গা আটক

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষ এখনো মনে রেখেছে অতি: পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইনকে

খালেদা জিয়া বন্দী মানেই, গণতন্ত্র বন্দী : শাহজাহান চৌধুরী

জিয়ার অসমাপ্ত কাজ বেগম জিয়ার পরিকল্পনায় ২১ আগষ্ট বোমা হামলা : এমপি আশেক

‘সংঘাত নয়, ঐক্যের বাংলাদেশ গড়ি’

‘দেশের স্বার্থ রক্ষা করে সাংবাদিকদের ইতিবাচক সংবাদ পরিবেশন করতে হবে’

টেকনাফ উপজেলা যুবদলের সভাপতি এড. হাসান সিদ্দিকীর পদত্যাগ

মাহবুবুল হক মুকুল কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক

রামুতে অপহরণের ২দিন পর ৫ম শ্রেণির ছাত্রী উদ্ধার ॥ আটক ২

চসিকের ১৫ দিনব্যাপী সবুজ মেলা শুরু

রামুর কচ্ছপিয়ায় এম. সেলিম গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন

রামু রশিদনগরে মাকে মেরে রক্তাক্ত করল ছেলে!

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার- ৭

উখিয়ারঘোনা লামারপাড়া পুরাতন কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ’র নতুন ভবন নির্মাণ উদ্বোধন

ক্বারী আব্দুল গনির ইন্তেকালে ইসলামী ছাত্রসমাজ কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদের শোক

এড. অনিল বড়ুয়ার মায়ের মৃত্যুতে জাসদের শোক

লোহাগাড়ায় ৩ সন্তানের জননী ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা

লোহাগাড়া জুয়েলার্স কল্যাণ সমিতির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন