কচ্ছপিয়ায় কর্মসূচির কাজে অনিয়ম, বেতন না পেয়ে অনাহারে দেড়শ পরিবার

মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু, নাইক্ষ্যংছড়ি।
কর্মসংস্হান কর্মসূচী (ইজিপিপি) এর আওতায় অতিদরিদ্রের জন্য সরকার ৪০ দিনের কর্মসূচীর প্রকল্প গ্রহন করেন, যা সারা বাংলাদেশের গ্রাম অঞ্চলে এ প্রকল্পের মাধ্যমে সরকার রাস্তাঘাটের উন্নয়ন কাজ করে সফল হলেও কচ্ছপিয়া ইউনিয়নে অনিয়মের কারণে নষ্ট হচ্ছে বর্তমান এ সরকারের ভাবমূর্তি। পাশাপাশি এই কাজ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এলাকার অতিদরিদ্র মানুষও। সরেজমিনে গিয়ে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ১৬ ডিসেম্বর থেকে কচ্ছপিয়া ইউনিয়নে ৪০ দিনের এই কর্মসূচীর কাজ শুরু হয়। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী ১ থেকে ৯ ওয়ার্ডের অতিদরিদ্র ২২৪ জন লোক নিয়োগ করা হলেও কাজ করে মাত্র ১৪০ অথবা সর্বোচ্চ ১৫০ জন। এর মাঝে আবার কোন কোন দিন মোটেও কাজ করেনা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামীলীগের এক প্রভাবশালী নেতা এই প্রতিবেদককে জানান, রামু উপজেলার কচ্ছপিয়াতে দূর্নীতিবাজ জনপ্রতিনিধিদের পকেট ভারী করতে চলছে এসব অনিয়ম। তিনি আরো জানান, দেড় শত জনের মত মানুষ কাজ করে তিন সপ্তাহ কাজের টাকা না পেয়ে কেউ ধার করে সংসারের ভরণপোষণ চালাছে, আবার কেউ অনাহারে অর্ধাহারে দিন যাপন করছে। এসব বিষয় নিয়ে কর্মসূচীর কাজের এক মাঝির সাথে আলাপ করা হলে তিনি বলেন যত দেরিতে টাকা ওঠায় তত মেম্বার চেয়ারম্যনদের লাভ। কারণ শুনেছি একবার টাকা ওঠালে অনেক অফিসারকে ভাগ দিতে হয় তাই ৪০ দিনে দুইবার ওঠালে তাদের লাভ বেশি হয়। এ জন্য খেটে খাওয়া মানুষ গুলো কষ্ট পাচ্ছে। গত কয়েক দিন ধরে এ প্রতিবেদক সরেজমিনে গেলে এসব অনিয়মের খবরে অভিযুক্ত জনপ্রতিনিধিদের মাঝে তোলপাড় শুরু হয়। ২ ওয়ার্ড মেম্বার জয়নাল আবদীনের ০১৪১৫১৫৬৪১৫ নং মোবাইলে জানতে চাইলে তিনি বলেন বৃষ্টিপাতের আশংকায় লোকজন মঙ্গলবারে কাজে আসেনি, তবে মঙ্গলবারের কাজ বৃহস্পতিবার করে দিবেন বলে এ প্রতিবেদককে জানান। এসব বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের প্রতিনিধি (ট্যাক) অফিসারের দায়িত্বে থাকা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম থেকে জানতে চাইলে তিনি গত মঙ্গলবার কাজ না করার কথা স্বীকার করে বলেন বুধবার প্রতিটি ওয়ার্ডে গিয়ে দেখতে পায় ১নং ওয়ার্ডে ১৩, দুই নম্বরে ১৮, তিন নম্বারে ২০, চার নম্বরে ১৬, পাঁচ নম্বরে ২৬, ৬ নম্বরে ১১, সাত নম্বরে ১৪, আট নম্বরে ১৮ ও নয় নম্বরে ১১ জনসহ মোট ১৪৭ জন লোক কাজ করেন। গত ২৮ ডিসেম্বর কচ্ছপিয় ১ নং ওয়ার্ডে মাত্র দুইটি স্থানে ৮ জন লোক কাজ করার ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইসমাঈল মোঃ নোমানকে মোবাইলে তোলা ছবি দেখানো হলে তিনি সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বারের কাছে মোবাইলে খবর নেন। স্থানীয়রা দূর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

মধ্য জানুয়ারিতে ভোট চায় ঐক্যফ্রন্ট

অা.লীগের মনোনয়ন নিলেন ব্যরিস্টার প্রশান্ত বডুয়া

জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন হিরো আলম

প্রথম দিন বিএনপির ১৩২৬ মনোনয়ন ফরম বিক্রি

টেকনাফে র‌্যাব-৯ এর অভিযানে ৯ হাজার ৮০৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার, আটক ১

আচরণবিধি প্রতিপালনে মাঠ পর্যায়ে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের নির্দেশ ইসির

‘জেলারের স্ত্রী ও শ্যালক এত টাকা কোথায় পেলেন’

রাজনৈতিক কারণে কাউকে গ্রেফতার না করার নির্দেশ

কর্মস্থলে যোগদান করলেন শিক্ষা প্রকৌশল নির্বাহী প্রকৌশলী খন্দকার নাজমুল ইসলাম

স্থানীয় ক্ষতিগ্রস্থ জনগোষ্টির আত্নসামাজিক উন্নয়নে কাজ শুরু করেছে সরকার

টোকেন এর নামে চাঁদাবাজি, শ্রমিকদের বিক্ষোভ

অবৈধ টমটমের বিরুদ্ধে অভিযানঃ মামলা, ১২ হাজার টাকা জরিমানা

পালংখালীতে নতুন করে রোহিঙ্গা ক্যাম্প স্থাপনা নিয়ে উত্তেজনা

উখিয়ায় ইজিপি প্রকল্পে অনিয়মের অভিযোগ

চকরিয়ায় দুরন্ত পথিক মেধা বৃত্তি পরীক্ষা’১৮ এর ফলাফল ঘোষণা

চকরিয়ায় স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ সম্পন্ন

পেকুয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত

নাইক্ষ্যংছড়িতে অবৈধ পাথর উত্তোলনের দায়ে ইউপি চেয়ারম্যানকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা 

শহরের যুবদল নেতা মোজাম্মেলের পিতার মৃত্যুতে লুৎফুর রহমান কাজলের শোক

লবণ মাঠ দখল চেষ্টা পেকুয়ায়, আহত ৩