এইচএম এরশাদ
ডুলাহাজারায় বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে অবমুক্ত করা হরিণ শাবক সুস্থ হয়ে উঠেছে বলে জানা গেছে। প্রাণ বাঁচাতে বিপন্ন প্রাণী পাহাড় থেকে ঝাঁপ দিয়ে চলে এসেছিল সমুদ্র সৈকতে। কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের প্রাণবৈচিত্র সমৃদ্ধ হিমছড়ি বনাঞ্চলে শিকারী ও রোহিঙ্গাদের উৎপাতে প্রাণীকূল বিপন্ন হয়ে পড়েছে।

সর্বশেষ রবিবার সকালে আহত এক হরিণ শাবককে দরিয়ানগর এলাকার সমুদ্র সৈকত থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসা দিয়ে ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে অবমুক্ত করা হয়েছে।

জানা যায়, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের হিমছড়ির শতাধিক ফিট উঁচু খাড়া পাহাড় থেকে মেরিন ড্রাইভে ঝাঁপ দেয় এক বছর বয়সী একটি মাদি হরিণ শাবক। পরে হরিণ শাবকটি সমুদ্র সৈকতে এসে ক্লান্ত হয়ে লুটিয়ে পড়ে। সেখান থেকে বনকর্মীরা স্থানীয়দের সহায়তায় হরিণ শাবকটি উদ্ধার করে প্রাণী চিকিৎসকের (ভেটেরিনারি সার্জন) কাছে নিয়ে যায়। চিকিৎসা শেষে বিকেলে ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক কর্তৃপক্ষ কক্সবাজার শহরে এসে হরিণ শাবকটি নিয়ে যায় এবং সেখানে অবমুক্ত করে। হরিণ শাবকটি বনাঞ্চলে তাড়া খেয়ে সমুদ্র সৈকতে চলে এসেছে বলে মনে করেন স্থানীয় পর্যটনকর্মীরা। উদ্ধারের পর শাবকটির শরীরে আঘাতের নানা চিহ্ন দেখা গেছে। সেখান থেকে রক্ত ঝরছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •