বাস্তুচ্যুত হয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে গঠিত হলো যৌথ ওয়ার্কিং কমিটি। দুই দেশের ১৫ জন করে সদস্য নিয়ে মোট ৩০ সদস্য এই কমিটিতে কাজ করবেন। কমিটির কাজ হবে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের তাঁদের নিজ দেশ মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো।

আজ মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন মেঘনায় এই কমিটি গঠন করা হয়। এ বিষয়ে আয়োজিত বৈঠকে অংশ নেন মিয়ানমারের পররাষ্ট্রসচিব মিন্ট থোয়ের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের প্রতিনিধিদল।
অন্যদিকে, বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন পররাষ্ট্রসচিব শহীদুল হক। প্রায় চার ঘণ্টার বৈঠকে চূড়ান্ত হয় যৌথ ওয়ার্কিং কমিটি, যেখানে বাংলাদেশের থাকবেন ১৫ সদস্য এবং মিয়ানমারের ১৫ জন। পরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী উপস্থিত হোন যৌথ ওয়ার্কিং কমিটির দলিল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে। তবে ওয়ার্কিং কমিটি এসব কাজ কখন কীভাবে ওয়ার্কিং কমিটি করবে সে ব্যাপারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্পষ্ট কিছু না জানিয়ে শুধু বলেন, ‘দেখা যাক।’

মিয়ানমারে নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সে দেশে ফেরত নেওয়ার ব্যাপারে গত ২৩ নভেম্বর বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে চুক্তি হয়, যেখানে উল্লেখ করা হয় রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর মূল কাজটি করার জন্য দুই দেশ মিলে একটি ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করা হবে। সেই অনুযায়ী গঠিত হলো এই যৌথ ওয়ার্কিং কমিটি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •