শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, ঈদগাঁও:
কক্সবাজার সদরের জালালাবাদে তুচ্ছ ঘটনার জেরে স্বামী-স্ত্রী,মেয়ের উপর উপর্যপুরী হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে ঘটনাটি ঘটে বাঁশঘাটা হাদেমর চর সড়কের মদিনা কলোনীর সামনে। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ক্লিনিকে পাঠিয়েছে।
আহতরা হল জালালাবাদ সওদাগর পাড়া এলাকার মৃত ফরিদুল আলমের পুত্র মোজাম্মেল হক (৪৫) তার স্ত্রী নাছিমা আক্তার ও মেয়ে ডেজি আক্তার (৯)। অভিযোগে জানা যায়, আহত ডেজি আক্তার বাড়ির জন্য স্থানীয় একটি করাতকল থেকে লাকড়ি নিয়ে বাসায় ফেরার পথে ইসলামাবাদ বাঁশঘাটা এলাকার এক বখাটে ছেলে তাকে ল্যাং মেরে ফেলে দেয়। প্রতিবাদ করলে চড়, থাপ্পর দিয়ে পালিয়ে যায়।পরে ডেজি আক্তার বাসায় পৌছে বিষয়টি মা- বাবাকে জানালে তারা ঘটনাস্থল এসে ঐ ছেলেকে ধরার চেষ্টা করে।এবং বিভিন্ন স্থানে খুঁজতে থাকে এক পর্যায়ে ছেলের নিকটাত্বীয় বাঁশঘাটা এলাকার জালাল আহম্মদের পুত্র মনজুর আলম, দিদার, নুরুল আলমসহ আরো ২/৩ জন দা, লোহার রড, লাঠি নিয়ে এসে তাদের উপর উপর্যপুরী হামলা চালায়।স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। পরে আহতদের উদ্ধার করে ঈদগাঁওস্থ একটি ক্লিনিকে ভর্তি করে। চিকিৎসাধীন মোজাম্মেল হক জানান, মেয়ের উপর হামলার বিষয় জানতে গিয়ে উল্টো হামলার শিকার হয়েছি। অপরদিকে অভিযুক্ত মনজুর আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে হামলা করা হয়নি। সামান্য হাতাহাতি হয়েছে বলে স্বীকার করে। আহতরা বিষয়টি তাৎক্ষনিক জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সোহেল জাহান চৌধুরীকে অবহিত করলে তিনি সহ জালালাবাদ আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদ মমতাজুল ইসলাম খাঁন,ইসলামাবাদ আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলাম এমইউপি তাদের দেখতে ক্লিনিকে যান। জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সোহেল জাহান চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •