প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ

শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস উপলক্ষে কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগ গৃহিত দিন ব্যাপী কর্মসূচীর আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তাফা বলেন বাঙ্গালী জাতিকে মেধা শূন্য করার জন্য স্বাধীনতা বিরোধী চক্রকরা বুদ্ধিজীবিদের হত্যা করেছিল। তারা ভেবেছিল বুদ্ধিজীবিদের হত্যা করে বাঙ্গালী জাতিকে মেধা শূন্য জাতি হিসেবে পরিণত করবে। আজ দেশবাসীর কাছে স্পষ্ট কারা সেদিন নারকীয় হত্যাকান্ড ঘটিয়েছিল। ভূলে গেলে চলবে না। সেই হত্যাকারীর ধূষররা এখনও শেখ হাসিনাকে হত্যা সহ দেশ বিরোধী বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করে দেশের উন্নয়নের অগ্রজাত্রাকে স্তব্ধ করে দিতে পায়তারা চালাচ্ছে। জাতিকে আজ সেই হত্যাকারীদের চিহ্নিত করে, সেই স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে, বিজয়ের মাসে স্বাধীনতার স্বপক্ষের সকল শক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়ে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান। জেলা আওয়ামীলীগ কর্তৃক দিন ব্যাপি পালিত কর্মসূচির মধ্যে সকালে দলীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনিমিত করণ, কলো পতাকা উত্তোলন, কলো ব্যচ ধারণ। সন্ধ্যা ৬ঘটিকায় কক্সবাজার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্জলন করা হয় এবং সন্ধ্যা ৭টায় জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমান ও সকল শহীদ বুদ্ধিজীবিদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মিলাত অনুষ্ঠিত হয়। জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তাফার সভাপতিত্বে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসের অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, সালাউদ্দিন আহমদ সিআইপি, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, রেজাউল করিম, মাহবুবুল হক মুকুল, হামিদা তাহের, আয়েশা সিরাজ, ইসতিয়াক আহমদ জয়, সোহেল আহমদ বাহাদুর। সভা পরিচালনা করেন এম.এ মনজুর আলোচনায় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, এডভোকেট বদিউল আলম, নুরুল আবছার, আব্দুল খালেক, নাজনিন সরওয়ার কাবেরী, তাপস রক্ষিত, ইউনুস বাঙ্গালী, এডভোকেট সোলতানুল আলম, আবু তাহের আজাদ, আবুহেনা মোস্তফা কামাল, বদরুল হাসান মিল্কি, ড. নুরুল আবছার, জি.এম আবুল কাশেম, নজিবুল ইসলাম, জহিরুল ইসলাম, এডভোকেট হেলাল, আরিফুল মওলা, লুৎফুন নাহার বাপ্পি, শাহানা আক্তার পাখি, রাসেল চৌধুরী, ওয়াহিদুর রহমান রুবেল প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •