এম.মনছুর আলম, চকরিয়া:
চকরিয়া উপজেলায় পুরাতন বিমান বন্দরস্থ মহিলা ডিগ্রী কলেজ ও কোরক বিদ্যাপীঠ লাগোয়া অবস্থিত চকরিয়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার।বিগত বছরের ন্যায় চলতি বছরের ৬ডিসেম্বর বুধবার সকাল ১১টার দিকে এলাকার বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের একদল তরুন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্ধৃদ্ব হয়ে ঝাড়ু হাতে শহীদ মিনারে ও এরই আশপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বিভিন্ন ময়লা আবর্জনা স্বেচ্ছাশ্রমে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করেছেন।কোন সরকারী উদ্যোগে এ মহৎ কাজটি করেনি।শুধুমাত্র দেশ মাতৃকার টানে এই দেশকে প্রতিষ্টা করতে গিয়ে যারা নিজের জীবনকে উৎসর্গ করেছেন সেই সব বীর যুদ্ধাদের প্রতি সম্মান জানিয়ে এ পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান করেছে স্কুল,কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া উদ্যামী ২০-২৫জনের একদল তরুণ।বুধবার দুপুরের দিকে পুরাতন বিমান বন্দর রোড় দিয়ে চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ শিক্ষা প্রতিষ্টান যাওয়ার পথে এ প্রতিবেদকের দৃষ্টি পড়ে একদল তরুণ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পরিচ্ছন্নতা অভিযানের কাজটি।যে কোন ব্যাক্তি শহীদ মিনারের পাশ দিয়ে গেলেই চোখে লক্ষ্য করবেন শহীদ মিনারের চারিদিকে এতটুকু ময়লা-আবর্জনা নেই।বর্তমান প্রজন্মের তরুণরা ১৯৭১সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ কি তা কখনও দেখিনি।তারা শুধুমাত্র পাঠ্য বইয়ে পড়েছে।যারা মুক্তিযুদ্ধ দেখেছে এবং দেশের টানে অস্ত্র হাতে নিয়ে যুদ্ধ করেছিল সে সব বীরের কাছ থেকে শুনেছে মুক্তিযুদ্ধে লাখো মানুষের আত্মত্যাগের কথা। মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বুকে ধারণ করে এই কাজে অংশ নিয়েছে তরুনরা।

জানা গেছে, চকরিয়ায় বেশ কয়েকটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন রয়েছে।ওই সব সেচ্ছাসেবী সংগঠনের মধ্যে থেকে স্বাধীন মঞ্চ, পীস ফাইন্ডার, চকরিয়া ব্লাড গ্রুপের মতো সংগঠনগুলোর সদস্যরা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রেখে চলেছেন।এরই ধারাবাহিকতা একটি অংশ হিসেবে বিগত বছরের ন্যায় চলতি ডিসেম্বরে তারা ঝাড়ু হাতে চকরিয়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার পরিস্কার করেছে।দেশের বিভিন্ন দুর্যোগকালীন সময়ে তারা সমাজের গরীর-অসহায় মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসেন।মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বুকে ধারণ করে এই কাজে অংশ নিয়েছে।পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানের স্থান হিসেবে লাখো শহীদের স্মৃতি বিজাড়িত শহীদ মিনারকেই বেছে নিয়েছেন এই তরুণরা।

পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানে নেতৃত্বে দেয়া পীস ফাইন্ডারের সদস্য আদনান রামীম কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হওয়া সে সব বীর শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শহীদ মিনারটি পরিস্কার করেছি।দেশের প্রতিটি মানুষ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হোক।বিশেষ করে বর্তমান প্রজন্মের শিক্ষার্থী ও তরুণরা সমাজের প্রতিটি ভাল কাজে অংশ নিয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করুক।তাহলে সমাজ পরিবর্তন হবে,দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।এ পরিচ্ছন্নতা অভিযান থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাজ থেকে সকল ধরণের প্রবণতা রোধ হবে বলে জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •