ইমাম খাইর, সিবিএন
ফুড সাপ্লিমেন্ট ও শ্যাম্পলের ঔষধ বিক্রি না করা, এমআরপি বস্তবায়ন, বিভিন্ন সময় অভিযানের নামে প্রশাসনের অযৌক্তিক জরিমানা-হয়রানী বন্ধের দাবীর কথা জানিয়ে সম্পন্ন হয়েছে বাংলাদেশ কেমিস্টস এন্ড ড্রাগিস্টস সমিতির বার্ষিক প্রতিনিধি সম্মেলন।
শহরের মোটেল লাবনী মাঠে অনুষ্ঠিত দুই দিনব্যাপী সম্মেলন মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) শেষ হয়েছে। সমাপনী দিবসে প্রধান অতিথি ছিলেন ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোস্তাফিজুর রহমান।
বিশেষ অতিথি ছিলেন- বাংলাদেশ ঔষধ শিল্প সমিতির মহাসচিব এস এম শফিউজ্জামান ও বাংলাদেশ ফর্মেসী কাউন্সিলের সহ-সভাপতি এম মোসাদ্দেক হোসেন।
বাংলাদেশ কেমিস্টস এন্ড ড্রাগিস্টস সমিতির সভাপতি ও নারায়নগঞ্জ সোনারগাঁ পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মোঃ ছাদেকুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ছাড়াও জেলা, উপজেলা কমিটির নেতারা বক্তব্য রাখেন।
বক্তারা বলেন, সরকারী নিয়ম মেনে ব্যবসা করার পরও মাঝে মধ্যে অভিযানের নামে তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে হয়রানী করা হয়। মোবাইলকোর্টের মাধ্যমে অনৈতিক ও অযৌক্তিকভাবে জরিমানা-সাজা চাপিয়ে দেয়া হয়। একটি অপরাধে একাধিক দন্ডে দন্ডিত করা হয় ঔষধ ব্যবসায়ীদের। তাদের মতে এটি অমানবিক আচরণ।
বক্তারা আরো বলেন, নকল-ভেজাল ঔষধ বিক্রি বন্ধ করতে হবে-সেটা তারা চায়। ঔষুধ শিল্পকে সমৃদ্ধ করতে প্রশাসনের সমস্ত কর্মসূচিকে তারা সাধুবাদ জানায়। কিন্তু অনেকে সৎভাবে ব্যবসা পরিচালনা করারও পরও জরিমানা গুনতে হয়। খোঁড়া অজুহাতে কারাগারে পাঠানো হচ্ছে ব্যবসায়ীদের। আগামীতে অভিযানের নামে অন্যায় আচরণ করা হলে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলা হবে বলেও জানান ক্ষুব্ধ ঔষধ ব্যবসায়ীরা। এ বিষয়ে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে তারা।
প্রতিনিধি সম্মেলনে বাংলাদেশ কেমিস্টস এন্ড ড্রাগিস্টস সমিতিভুক্ত সারাদেশের ৫৪ টি শাখা সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এতে বক্তৃতা করেন- সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ মোজাম্মেল হক, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি ও সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক সমীর কান্তি সিকদার, সহ-সভাপতি মোঃ শাহ আলম, আলহাজ্ব মোঃ আবদুল হাই প্রমুখ। সম্মেলনে চট্টগ্রাম বিভাগীয় সহ-সভাপতি তপন কুমার বিশ্বাস, আলহাজ্ব নুরুর গণি, আশীষ কুমার ছট্টাচার্য্য, কক্সবাজার জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মিজানুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক গৌরাঙ্গ দত্তসহ কেন্দ্রীয়, বিভাগীয় ও জেলা-উপজেলা নেতারা বক্তব্য রাখেন। বার্ষিক এই সম্মেলন সফল করতে সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিল সংগঠনটির চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলা শাখা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •