গতকাল সোমবার কক্সবাজারের একটি স্থানীয় পত্রিকায় কক্সবাজার সিটি কলেজ নিয়ে প্রকাশিত সংবাদটি বিভ্রান্তিকর ও অনভিপ্রেত। পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও কলেজের প্রাত্যহিক কার্যক্রম বন্ধ ছিলো। তবে দাপ্তরিক বিভিন্ন কাজ ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান পরীক্ষা সংক্রান্ত প্রয়োজনে কলেজ অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষকে শুক্রবারসহ সরকারী বন্ধের দিনে কলেজে উপস্থিত থাকতে হয়। উল্লেখ্য,বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এইচএসসির ক্লাস ও আইন পরীক্ষাসহ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পরীক্ষা শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়। ফলে জুম্মাবার ও সরকারী নিয়মিত ছুটির দিন হওয়া সত্ত্বেও প্রায় প্রত্যেক শুক্রবার কলেজ অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ,সংশ্লিষ্ট শিক্ষক-কর্মচারীদেরকে কলেজে উপস্থিত থাকতে হয়।

এরফলে সরকার ঘোষিত বন্ধ সত্ত্বেও কলেজের বৃহত্তর স্বার্থে কলেজ অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষকে অনেক সময় কলেজে উপস্থিত থাকতে হয়। মনে রাখতে হবে, কোনো চাকরীজীবি শখ করে বন্ধের দিনে অফিস করেন না।

দুঃখের বিষয়, বিগত শনিবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর দিনে কক্সবাজার সিটি কলেজের অফিস খোলা রাখা নিয়ে একটি স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদে প্রকৃত তথ্য উপস্থাপন করা হয় নি।

বিগত শনিবার কলেজ অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ শুধুমাত্র অফিস খোলা রাখেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা সংক্রান্ত কাজে। এছাড়া এইচএসসি বিত্রম শাখার কিছু শিক্ষার্থীর আভ্যন্তরীণ পরীক্ষা নেন সংশ্লিষ্ট বিভাগের শিক্ষক শহীদুল ইসলাম চৌধুরী তার নিজের ইচ্ছায়।

এছাড়া ওইদিন কলেজের ক্লাস ও অন্যান্য অফিস বন্ধ ছিলো। অতএব, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর সরকারী ছুটি মানা হয় নি বলে যে তথ্য প্রদান করা হয়েছে তা সঠিক নয়।

উল্লেখ্য, কক্সবাজার সিটি কলেজে শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের নামাজ পড়ার জন্য নির্মাণ করা হয়েছে ইবাদত খানা। এছাড়া কলেজ ক্যাম্পাসে একটি মসজিদ নির্মাণ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। বার্ষিক মিলাদসহ অন্যান্য ইসলামী দিবসে বিভিন্ন আয়োজন করা হয় নিয়মিতভাবে।

সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতির জন্য জানাতে চাই য়ে, ব্যক্তিগত স্বার্থে নয়,কলেজের স্বার্থে, শিক্ষার্থীদের স্বার্থে,আমরা অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ,সংশ্লিষ্ট শিক্ষক-কর্মচারীরা বন্ধ দিনেও কলেজ ক্যাম্পাসে অবস্থান করি। এটা নিশ্চয়ই আমাদের অপরাধ নয়।

আমরা সাংবাদিকসহ সকল মহলের সহযোগিতা কামনা করি। যাতে কক্সবাজার সিটি কলেজকে দক্ষিণ চট্টগ্রামের শীর্ষ উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে পারি।

আবু মোহাম্মদ জাফর সাদেক

উপাধ্যক্ষ

কক্সবাজার সিটি কলেজ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •