মো. রেজাউল করিম, ঈদগাঁও:

কক্সবাজার সদর উপজেলাধীন ইসলামাবাদ ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের (ইউডিসি) উদ্যোক্তা ও সহকারী উদ্যোক্তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। কয়েক মাস আগে ইউপি চেয়ারম্যান মো. নুর ছিদ্দিক ইউনিয়ন পরিষদের বৈঠকে এ সংক্রান্ত একটি রেজ্যুলেশন অনুমোদন করেন। তবে রেজ্যুলেশনের বিষয়টি গোপন রাখায় অব্যাহতিপ্রাপ্ত উদ্যোক্তা যথারীতি কাজ করে আসছিলেন। শেষে ৪ ডিসেম্বর তাকে ইউডিসির যাবতীয় হিসাব নিকাশ ও মালামাল বুঝিয়ে দিতে বলা হয়েছে।

প্রাপ্ত তথ্যে প্রকাশ, ইসলামাবাদ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল হক সওদাগরের মেয়াদকালে উদ্যোক্তা এবং সহকারী উদ্যোক্তা হিসাবে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগপ্রাপ্ত হন ইউছুপেরখীল এলাকার আবুল মনছুর আহমদ ও তার স্ত্রী। সহকারী উদ্যোক্তা হিসাবে স্ত্রী নিয়োগপ্রাপ্ত হলেও তিনি কোনদিন অফিস করেননি। তার হয়ে তার স্বামী মনছুরই কাজ চালিয়ে নিতেন। পরে বর্তমান চেয়ারম্যান মো. নুর ছিদ্দিক তার শপথ গ্রহণের দিন সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের এক প্রকার চাপের মুখে পুনরায় উক্ত দু’জনের চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করতে সম্মত হন। পুনঃ নিয়োগ পাওয়ার পর উদ্যোক্তা আবুল মনছুর ব্যক্তিগত অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা, অফিস ফাঁকি দেয়া, প্রাতিষ্ঠানিক শৃঙ্খলা ভঙ্গ করা, সেবা গ্রহীতাদের কাছ থেকে ইচ্ছেমত টাকা আদায় করাসহ নানা দূর্ণীতিতে জড়িয়ে পড়েন। পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন আইটি প্রতিষ্ঠানের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত করে সেসব স্থানে প্রচুর সময় দিতে শুরু করেন। এতে করে ইউনিয়নের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা সেবাগ্রহীতারা কাঙ্খিত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছিলেন।

জানতে চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান মো. নুর ছিদ্দিক তাদের অব্যাহতি দেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, দীর্ঘদিন যাবত স্থানীয় সেবাপ্রার্থী এবং ইউপি সদস্য-সদস্যাদের থেকে তার অনিয়ম, দূর্ণীতি, স্বেচ্ছাচারিতা ও নানা ব্যাপারে অভিযোগ আসছিল। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের কার্যক্রম আরো জোরদার করতে এবং সেবা নিতে আসা প্রান্তিক জনসাধারণের ভোগান্তি লাঘবের কথা চিন্তা করে ইউনিয়ন পরিষদের বৈঠকে উপস্থিত সকলের মতামত সাপেক্ষে তাদের অব্যাহতি দান সংক্রান্ত রেজ্যুলেশন গ্রহণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে অব্যাহতিপ্রাপ্ত উদ্যোক্তা আবুল মনছুর আহমদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ব্যক্তিগত কাজের চাপে ইউডিসিতে তিনি কাঙ্খিত সময় দিতে পারছিলেন না। তবে তিনি অনিয়মসহ অন্যান্য অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

উল্লেখ্য, সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল হক সওদাগরের মেয়াদকালে এ উদ্যোক্তার বিরুদ্ধে ইউনিয়নের সেবাবঞ্চিত লোকজন বাজারে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে তাকে ইউডিসি থেকে অব্যাহতি দানের দাবী জানিয়েছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •