অনলাইন ডেস্ক:

তিনি নাকি বিশ্বের জনপ্রিয় হলিউড অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির সবচেয়ে বড় ভক্ত। দাবি করেন, তার মতো জোলির ভক্ত আর কেউ নেই। তাই যে করেই হোক জোলির মতো চেহারা হতে হবে তার। কিন্তু জোলির মতো হতে গিয়ে কী দশাই না হলো ইরানের এ কিশোরীর।
ব্রিটেনের দ্য সান পত্রিকার রিপোর্টে প্রকাশ, অ্যাঞ্জেলিনা জোলির মতো দেখার জন্য প্রথমে ডায়েট শুরু করেন সাহার তাবার নামে ওই কিশোরী। মাত্র ৪০ কেজি ওজন নিয়ে এরপর জিমে যাওয়া শুরু করেন তিনি। অতিরিক্ত ডায়েটের ফলে সাহার ‘আন্ডারওয়েট’ বলে জানিয়ে দেন চিকিত্সক। কিন্তু, কোনো কিছুকেই পাত্তা দেননি ওই কিশোরী। সিদ্ধান্ত নেন জোলির মতো হতে যা করার সবই করবেন তিনি। দুর্বল শরীর নিয়েই ৫০টি অস্ত্রোপচার করান তিনি।
কিন্তু, তাতেও জোলির লুক না আসায় শেষ পর্যন্ত ৪.৫ ফিটের ১৯ বছরের ওই তরুণী কন্ট্যাক্ট লেন্স ব্যবহার শুরু করেন। তাতেও কাজ হয়নি। ৫০টি অস্ত্রোপচার করিয়ে শেষ পর্যন্ত সাহারের কী অবস্থা হলো তা ছবিতেই প্রকাশ। অস্ত্রোপচারের পর দেখা যায়, অ্যাঞ্জেলিনা জোলি তো দূরে থাক, নিজের আগের রূপের থেকেও ‘কুৎসিত’ হয়ে যায় তার চেহারা।
ইতিমধ্যেই ইরানের ওই কিশোরী সোশ্যাল মিডিয়ায় জনপ্রিয় হয়েছেন। ইনস্টাগ্রামে তার ফলোয়ারের সংখ্যা ৩ লাখ ছাড়িয়েছে। ১৪ হাজার লাইকও পড়েছে তার ছবিতে। চলছে কমেন্টের বন্যাও।
তবে সাহারের ওই লুক নিয়ে তাকে সমালোচিতও হতে হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকেই তাকে নিয়ে জোর বিতর্ক জুড়ে দিয়েছেন।

দেখুন ভিডিওতে:

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •