ইমরান হোসাইন, পেকুয়া:

কক্সবাজারের লিংকরোড এলাকা থেকে অপহৃত সুরত আলম নামের এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করেছে পেকুয়া থানা পুলিশ। এসময় অপহরণ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মোক্তার নামের একব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। অপহৃত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সুরত আলী রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের কম্বলিয়া পাড়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি পরিবার সহ দীর্ঘদিন ধরে লিংকরোড এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছিলেন।

বৃহস্পতিবার (৩০নভেম্বর) দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পেকুয়া থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) উত্তম কুমার সরকার ও শিমুল বড়–য়ার নেতৃত্বে একদল পুলিশ তাকে উদ্ধারে চিরুনি অভিযান চালায়। পরে রাত ৮টার দিকে অপহৃতকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। পুলিশি অভিযানের মুখে অপহৃতকে বারবাকিয়া ইউনিয়নের ফাঁসিয়াখালী এলাকায় ছেড়ে দিয়ে অপহরণকারীরা সটকে পড়েন বলে জানিয়েছেন এসআই উত্তম কুমার।

অপহৃতের স্ত্রী রেহানা বেগম বলেন, গত ২৮নভেম্বর সকালে কক্সবাজার লিংকরোড এলাকা থেকে আমার স্বামীকে অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিরা অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরের দিন (২৯নভেম্বর) অপহরণকারীরা বিভিন্ন মোবাইল থেকে আমার মোবাইলে ফোন করে ৬০হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। তাদের দাবীকৃত টাকা না দিলে আমার স্বামীকে খুন করবে বলে হুমকি দেয়। এতে আমি ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে বিকাশের মাধ্যমে কিছু টাকা তাদের দিই। কিন্তু টাকা পেয়েও অপহরণকারীরা আমার স্বামীকে মুক্তি না দিয়ে আরো টাকা দাবি করে। পরে বৃহস্পতিবার (৩০নভেম্বর) পেকুয়া থানা পুলিশের সহায়তা চাইলে তারা চিরুনি অভিযান চালিয়ে আমার স্বামীকে উদ্ধার করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মনজুর কাদের মজুমদার বলেন, এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোক্তার নামের একব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। অপহৃতকে উদ্ধার করা হয়েছে। অপহরণকারীদের আটকে অভিযান চালানো হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •