সাতকানিয়া-লোহাগাড়া সমিতির নির্বাচন: এগিয়ে আছেন আবদুর রহমান

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রাত পেরোলেই কক্সবাজারস্থ সাতকানিয়া-লোহাগাড়া সমিতির নির্বাচনের ভোট গ্রহণ করা হবে। প্রার্থীরাও ইতিমধ্যে শেষ করেছেন শেষ মুহূর্তের কর্মযজ্ঞ। এখন শুরু শুধু ভোটের জন্য অপেক্ষা। নির্বাচন কমিশন ভোট গ্রহনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন। ভোটাররাও অপেক্ষা করছেন পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দানে।

নির্বাচনে সহ-সভাপতি পদে লড়ছেন এই শহরের পরিচিত মুখ ও সফল ব্যবসায়ী নেতা আবদুর রহমান। তার প্রতীক কলম।  তিনি মনোনয়নপত্র জমা দানের পর থেকে এক নাগাড়ে চালিয়েছেন নির্ঘুম প্রচারণা। গিয়েছেন প্রতিটি ভোটারের দ্বারে। জয়ী হলে নিজ দায়িত্ব ও সদস্যদের অধিকার আদায়ে দৃঢ়ভাবে কাজ করার জন্য ওয়াবদ্ধ হয়েছেন তিনি। ভোটাররাও তাকে ভোট দেয়ার দৃঢ় প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ভোটারদের সাথে কথা বলে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

ভোটারা জানিয়েছেন, আবদুর রহমান দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছেন। ব্যবসার পাশপাশি তিনি সাধারণ ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন স্তরের মানুষের সমস্যা সমাধানে কাজ করে আসছেন। বিশেষ করে সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত লোকজনের সমস্যা সমাধানে তিনি নিরলসভাবে কাজ করেছেন। এই কারণে একাধিক ব্যবসায়ী সংগঠন, সামাজিক সংগঠনের শীর্ষ নেতৃত্বে রয়েছেন। এছাড়াও চারিত্রিক ভাবে তিনি ভালো একজন মানুষ। সব দিক মিলিয়ে তিনিই সবচেয়ে যোগ্য প্রার্থী। তাই ভোটাররা তাকে ভোট দেয়ার মনস্থির করেছেন।

প্রচারণার একটি খন্ড

জানা গেছে, আবদুর রহমান শুরু থেকেই নির্ঘুম প্রচারণা চালিয়েছেন। রাতদিন সমান তালে তিনি ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট কামনা করেছেন। প্রচারণায় তাঁর সাথে বিপুল ভোটার ও শুভাকাঙ্খী সঙ্গে ছিলেন। এছাড়াও আরো কয়েকটি দল বিভক্ত হয়ে আবদুর রহমানের পক্ষে ভোট কামনা করেছেন। যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, সজ্জন ও অমায়িক প্রার্থী হিসেবে তাঁর পক্ষে ভোটাররাও ব্যাপক সাড়া দিয়েছেন। অনেক ভোটার সরাসরি তাঁর পক্ষে প্রচারণাও চালাচ্ছেন। বিশ্লেষকরাও বলছেন, সব দিক দিয়ে এগিয়ে থাকায় আবদুর রহমানের পক্ষে ভোটারদের আগ্রহ অনেক বেশি দেখা যাচ্ছে। তাই জয়ের সম্ভাবনা সবার চেয়ে বেশি।

প্রচারণা একটি খন্ড

জানা গেছে, সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার সমিতির নির্বাচনকে ঘিরে কক্সবাজারে এক অন্যরকম ভোটের আমেজ বিরাজ করছে। প্রার্থীদের সরব বিচরণ ও নানা ধরণের প্রচারণায় এই আমেজ তৈরি হয়েছে। এই নির্বাচনে ছয়জন সহ-সভাপতি প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নির্বাচিত হবেন তিনজন। তবে ছয় প্রার্থীর মধ্যে আবদুর রহমানই সবচেয়ে যোগ্য প্রার্থী। তাই তিনি এগিয়ে রয়েছেন।

আবদুর সফল ব্যবসায়ী আবদুর রহমান একাধারে বৃহত্তর বীচ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি, দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক , সুগন্ধা শুটকি ও অন্যান্য সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক। এছাড়াও সামাজিক উন্নয়নে নানা কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। এরই অংশ হিসেবে তিনি বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলন চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমন্বয়কারী ও কক্সবাজার জেলা সভাপতির মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পেয়েছেন। একই সাথে সাংবাদিক হিসেবেও তার একটা গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। তিনি সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজারের নির্বাহী সদস্য।

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে আবদুর রহমান বলেন, আমি ছাত্রজীবন থেকে ব্যবসার সাথে জড়িত। সেই দীর্ঘদিন সফলতার সাথে ব্যবসা করে আসছি। এসময়ে বিভিন্ন ব্যবসায়িক সংগঠন ও সামাজিক সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে এসেছি এবং করে যাচ্ছি। তাই সংগঠনের দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে আমার অভিজ্ঞতা রয়েছে। তাই দৃঢ়তার বলতে চাই আমি নির্বাচিত হলে সমিতির সদস্যরা সর্বোচ্চ সেবা পাবেন। এই প্রতিশ্রুতি আমি নির্দি¦ধায় দিতে দিচ্ছি।’

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

খরুলিয়ায় ছেলের ছুরিকাঘাতে পিতার মৃত্যু

তফসিল ঘোষণার পর থেকেই নির্বাচনকালীন সরকার শুরু -মন্ত্রিপরিষদ সচিব

চট্টগ্রামে বিএনপির মনোনয়ন ফরম নিলেন ৫ জন

সংসদ নির্বাচনের মাঠে যেসব ফুটবলাররা

নির্বাচনের পরিবেশ অনুকূল নয়, কূটনীতিকদের জানালো বিএনপি

কক্সবাজার-৩ আসনে আওয়ামী লীগের ২৪ জনের মনোনয়ন ফরম জমা

মধ্য জানুয়ারিতে ভোট চায় ঐক্যফ্রন্ট

অা.লীগের মনোনয়ন নিলেন ব্যরিস্টার প্রশান্ত বডুয়া

জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন হিরো আলম

প্রথম দিন বিএনপির ১৩২৬ মনোনয়ন ফরম বিক্রি

টেকনাফে র‌্যাব-৯ এর অভিযানে ৯ হাজার ৮০৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার, আটক ১

আচরণবিধি প্রতিপালনে মাঠ পর্যায়ে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের নির্দেশ ইসির

‘জেলারের স্ত্রী ও শ্যালক এত টাকা কোথায় পেলেন’

রাজনৈতিক কারণে কাউকে গ্রেফতার না করার নির্দেশ

কর্মস্থলে যোগদান করলেন শিক্ষা প্রকৌশল নির্বাহী প্রকৌশলী খন্দকার নাজমুল ইসলাম

স্থানীয় ক্ষতিগ্রস্থ জনগোষ্টির আত্নসামাজিক উন্নয়নে কাজ শুরু করেছে সরকার

টোকেন এর নামে চাঁদাবাজি, শ্রমিকদের বিক্ষোভ

অবৈধ টমটমের বিরুদ্ধে অভিযানঃ মামলা, ১২ হাজার টাকা জরিমানা

পালংখালীতে নতুন করে রোহিঙ্গা ক্যাম্প স্থাপনা নিয়ে উত্তেজনা

উখিয়ায় ইজিপি প্রকল্পে অনিয়মের অভিযোগ