অনলাইন ডেস্ক:

ভয়ঙ্কর এক নারকীয় ঘটনার সাক্ষী হয়ে রইলো ভারতের উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগর। প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে যাওয়ায় অপরাধে এক তরুণীকে ধর্ষণ করল তার পরিবারেরই চারজন সদস্য।

মঙ্গলবার এই ঘটনার অভিযোগ দায়ের হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, ধর্ষকদের মধ্যে রয়েছে তার ভাই এবং বাবাও।

পুলিশ সূত্রের খবর, প্রেমিকের সঙ্গে সেই তরুণী বাড়ি থেকে বেরিয়ে গিয়েছিলেন কয়েক মাস আগে। প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে যাওয়ার পরিবারের সম্মানহানি হয়েছে বলে দাবি করে তাকে ধর্ষণ করে তার বাবা, ভাই ও দুই কাকা। অভিযুক্তরা সকলকেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

নির্যাতিতা সেই তরুণী জাণাণ, ধর্ষণের ঘটনার কথা কাউকে জানালে অভিযুক্ত চারজন তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এছাড়াও তাকে ক্রমাগত হুমকি দিতে থাকে তার পরিবারের লোকজন। তাকে একটি বাড়িতে আটকেও রাখা হয়। ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে সেদিনের ঘটনার গোপন জবানবন্দী দেন তিনি

স্থানীয় তদন্তকারী পুলিশ অফিসার কুশল পাল সিং বলেন, প্রেমিকের সঙ্গে মেয়েটি পালিয়ে যায় মাসখানেক আগে।

এই অপরাধে মেয়েটি নিজের পরিবারের চার সদস্যদের কাছে ধর্ষিতা হন। মেয়েটি নিজে থানায় এসে বাবা, ভাই ও দুই কাকার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।
তিনি আরও বলেন, আটককৃতরা জেরায় স্বীকার করেছে বাড়িতে চারজন মিলে গণধর্ষণ করা হয়। সোমবার এলাহাবাদ হাইকোর্টের নির্দেশে অভিযুক্ত চারজনের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •