নাইক্ষ্যংছড়িতে অপহৃত দু জন এখনো উদ্ধার হয়নি

হাবিবুর রহমান সোহেল,নাইক্ষ্যংছড়ি :

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দোছড়ি ইউনিয়নের বাঁকখালী মৌজার ছাগল খাইয়া গ্রামের বাসিন্দা মোঃ হোছন (৪২) ও নুরুল আজিম (৩২) গত ২১ নভেম্বর মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে নিজ বাড়ী থেকে ৮/১০ জনের সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের একটি দল অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহরণের দুইদিন পর অপহৃতদের মোবাইল থেকে ফোন করে পরিবারের সদস্যদের নিকট ৭ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী করে আসছিল সন্ত্রাসীরা। টাকার পরিমাণ কম হলেও এবং যথাসময়ে টাকা পরিশোধ না করলে তাদের হত্যা করা হবে বলেও মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়ে আসছিল সন্ত্রাসীরা।অপহৃত মোঃ হোছনের স্ত্রী রাশেদা বেগম জানান, অপহরণের দুইদিন পর মোবাইল ফোনে তার স্বামীর মুক্তিপনের জন্য ৪ লাখ টাকা দাবী করেছিল। গতকাল রবিবারও একইভাবে টাকা দাবী করে এবং না দিলে হত্যার হুমকি দেয়। বৃদ্ধ পিতা ফয়েজ আহাম্মদ কান্নারত অবস্থায় বলেন, তারা কৃষি কাজ করে কোন রকমে ঘর সংসার চালায়। এত টাকা কোথায় পাবে এবং ছেলেকে কিভাবে জিম্মি দশা থেকে মুক্তি করে আনবে ! এ কথা বলে তিনি বিলাপ করে কাঁদতে থাকেন। অপহৃত নুরুল আজিমের স্ত্রী ইছমত আরা বলেন, স্বামীর মুক্তির জন্য ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে সন্ত্রাসীরা। অন্যথায় তাকেও হত্যা করা হবে। অপহৃত নুরুল আজিমের বড় ভাই আমির হোছন জানান, তারা অত্যন্ত গরীব। এত টাকা কোথায় পাবে। কোন রকমে মানুষের জমি বর্গা চাষ করে তাদের সংসার চলে। গতকাল রবিবার এই প্রতিবেদক সরজমিনে গিয়ে দুর্গম দোছড়ি ইউনিয়নের বাঁকখালী মৌজার ছাগল খাইয়া গ্রামে অপহৃতদের আত্মীয় স্বজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, অপহরণের পর দুর্গম পাহাড়ে পুলিশ-বিজিবির অভিযান অব্যাহত আছে। তারপরও ৬দিন যাবত তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। এ নিয়ে উভয় পরিবারের মাঝে উৎকন্ঠায় দিন কাটছে। স্ত্রী-পুত্র, মা-বাবার কান্নায় আকাশ, বাতাস ভারি হয়ে উঠছে। তারা শঙ্কায় রয়েছেন যদি তাদের হত্যা করে ফেলে। তাদের হাতে টাকাও নাই, কোন রকম অল্প কিছু টাকা দ্বার কর্জ্ব করে যোগাড় করেছেন বলে পরিবারের সদস্যরা জানান। আজ দীর্ঘ ৬দিন পার হলেও তাদের উদ্ধার সম্ভব হয় নাই। স্থানীয় ইউপি সদস্য রেহেনা আক্তার জানান, অপহৃত দুইজনের উদ্ধারে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী প্রাণপন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সন্ত্রাসীরা মাঝের মধ্যে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে দুইজনের জন্য ৭ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবীর কথা তিনি তাদের পরিবারের নিকট শুনেছেন। এ বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি থানার নবাগত ইনচার্জ মোঃ আলমগীর শেখ এর নিকট মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, অপহৃতদের উদ্ধারে পুলিশ-বিজিবির অভিযান অব্যাহত রায়েছে এবং সম্ভাব্য স্থানগুলো ঘেরাও পূর্বক অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। অচিরেই অভিযানের মাধ্যমে উদ্ধার করা সম্ভব বলে তিনি আশা করছেন। উল্লেখ্য, বিগত দিনেও দোছড়ি ইউনিয়নের বাঁকখালী মৌজার ছাগল খাইয়া থেকে ৬জন তামাক চাষী অপহরণ করেছিল সন্ত্রাসীরা। তাদেরকেও মুক্তিপনের বিনিময়ে সন্ত্রাসীরা ছেড়ে দেয় বলে স্থানীয়রা জানান।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

নুরুল আলম বহদ্দারের কবর জিয়ারত করলেন লুৎফুর রহমান কাজল

জীবনের প্রথম প্রচেষ্টাতে ঈর্ষনীয় সাফল্য মৌসুমীর

এলআইসিটি বেস্ট অ্যাওয়ার্ড পেলো চবি শিক্ষার্থী নিপুন

খরুলিয়ায় মাদকবিরোধী মতবিনিময় সভা

ঈদগাঁও-খুটাখালী থেকে দিনদুপুরে কাঠ পাচার!

কর্মসুচিতে যোগ দিতে ২২ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম আসছেন ইলিয়াস কাঞ্চন

টেকনাফ উপজেলা যুবদলের সম্মেলনকে ঘিরে প্রাণচাঞ্চল্য : চাপিয়ে দেয়া কমিটি মানবে না!

 বিচার শুরুর অপেক্ষায় খালেদা জিয়ার আরও ৭ মামলা

অক্টোবর থেকে সেন্টমার্টিনে জাহাজ চলাচল শুরু

প্রধানমন্ত্রীকে আল্লামা শফীর অভিনন্দন

রাত ১০-১১টার পর ফেসবুক বন্ধ চান রওশন এরশাদ

আফগানদের কাছে বাংলাদেশের শোচনীয় পরাজয়

আজ পবিত্র আশুরা

দেশের স্বার্থেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন : প্রধানমন্ত্রী

সরকারের শেষ সময়ে আইন পাসের রেকর্ড

রাঙ্গামাটিতে ঘুম থেকে তুলে দু’জনকে গুলি করে হত্যা

শেখ হাসিনার গুডবুক ও দলীয় হাই কমান্ডের তরুণ তালিকায় যারা

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার নিয়ে ‘ধোঁয়াশা’ কাটবে এ মাসেই

বিষাদময় কারবালার ইতিহাস

পবিত্র আশুরা : সত্যের এক অনির্বাণ শিখা