বিশেষ সংবাদদাতা
কক্সবাজারস্থ সাতকানিয়া-লোহাগাড়া সমিতির নির্বাচনী প্রচারণা এখন তুঙ্গে। সভাপতি সম্পাদকসহ সব পদের প্রার্থীরা নিরলস প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে সাধারণ সম্পাদক পদে তুমুল প্রচারণা চলছে। আগামী ৩০ নভেম্বর ভোট গ্রহণ।
সাধারণ সম্পাদক পদে দুইজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাদের একজন মাওলানা নজরুল ইসলাম। তিনি দেওয়াল ঘড়ি প্রতীক পেয়েছেন। অপর সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী জেবর মুলক। তিনি প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। ভোটারদের কাছে যাওয়ার চেষ্টায় আছেন। তবে, এ পর্যন্ত মাঠ জরিপে নজরুল ইসলাম অনেক ভাল অবস্থানে রয়েছে বলে ভোটাররা জানান।
বেশ কয়েকজন ভোটারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মাওলানা নজরুল ইসলাম একজন ভাল সংগঠক, স্বচ্ছ ও পরিশ্রমী ব্যবসায়ী। ব্যবসার জগতে তার ভাল অবস্থান। ব্যক্তি হিসেবে সুশিক্ষিত। দীর্ঘ দিন ধরে কক্সবাজার শহরে ব্যবহা করছেন। বিবিধ গুনের কারণে ভোটাররা মাওলানা নজরুল ইসলামকে নির্বাচিত করবে বলে মনে করা হচ্ছে।
মাওলানা নজরুল ইসলাম কক্সবাজারের প্রসিদ্ধ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েল টেইলার্স এর স্বত্তাধিকারী, বৃহত্তর ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি, শহরের ৩ নম্বর কমিউনিটি পুলিশ এর সহ-সভাপতি।
তিনি রোগী কল্যাণ সমিতি, রেডক্রিসেন্ট সমিতির আজীবন সদস্য, কক্সবাজার বয়তুশ শরফ মসজিদের কোষাধ্যক্ষ।
মাওলানা নজরুল কক্সবাজারের প্রাচীন দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হাশেমিয়া কামিল (মাস্টার্স) মাদরাসার এক সময়ের সনামধন্য শিক্ষক। বর্তমানে ব্যবসায়ীক জীবনে তিনি একজন সফল ব্যবসায়ী।
নির্বাচিত হলে সমিতির জন্য কি কাজ করবেন? জানতে চাইলে মাওলানা নজরুল ইসলাম বলেন, আমি দীর্ঘ ব্যবসায়ীক জীবনে সবসময় মানুষের সুখে-দুঃখে ছিলাম। মানবিক ও সামাজিক কাজ করতে আমি স্বাচ্ছন্দবোধ করি।
তিনি বলেন, সাতকানিয়া-লোহাগাড়া সমিতির অনেক সদস্য রয়েছে যারা অস্বচ্ছল ও বিপদগ্রস্ত। আমি নির্বাচিত হলে সর্বপ্রথম সমস্যা চিহ্নিত করে তা দ্রুত সমাধানের চেষ্টা করব। সবার সাথে সমন্বয় করে কিভাবে সমিতিকে অগ্রসর করা যায় তা নিয়ে কাজ করব। মালিক-কর্মচারী ভেদাভেদ দূর করে ভ্রাতৃত্ববোদের পরিবেশ সৃষ্টিতে আপ্রাণ চেষ্টা করব। সাতকানিয়া-লোহাগাড়া সমিতিকে একটি মডেল সমিতি হিসেবে পরিণত করব, ইনশাল্লাহ।
মাওলানা নজরুল বলেন, সমিতি থেকে নেওয়ার কিছুই নেই। সমিতি ও সমিতির সদস্যদের কি দেয়া যায়, কিভাবে দেয়া যায়- তা নিয়ে কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করব এবং সে অনুযায়ী কাজ করব। সমিতির ৩০৭৯ জন ভোটারের মধ্যে সুন্দর সম্পর্কের সেতুবন্ধন তৈরীতে কাজ করব। আজীবন সমিতির উন্নয়নে কাজ করব।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •