মোঃ আশেক উল্লাহ ফারুকী, টেকনাফ:
অতিদরিদ্রাদের জন্য কর্মসংস্থান (ইজিপিপি) কর্মসূচী প্রকল্পের আওতায় টেকনাফ উপজেলায়র ৬ ইউনিয়নে ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের ১ম পর্যায়ে দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা ও ত্রানমন্ত্রনালয় ১ কোটি ৭৪ লক্ষ ৪ হাজার ২১০ টাকা বরাদ্ধ দিয়েছে। এ নিয়ে সকল প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী দপ্তরের ত্রাণ শাখা সূত্রে ২২ নভেম্বর উক্ত তথ্য নিশ্চিৎ করেছেন।

জানা যায়, এ অর্থ বছরের বরাদ্ধপ্রাপ্ত উপকারভোগী কার্ড সংখ্যা ২ হাজার ৫৮টি। মোট শ্রমিক মজুরী ১ কোটি ৬৪ লক্ষ ৬৪ হাজার টাকা। মোট নন ওয়েজ কষ্ট ৮ লক্ষ ৭২ হাজার ২১০ টাকা। সর্দার মজুরী ১ লক্ষ ৮ হাজার টাকা। ইউনিয়নওয়ারী বরাদ্দ দেয়া ১নং হোয়াইক্যং মডেল ইউনিয়নে ৫৬০ জন উপকার ভোগী, শ্রমিক মজুরী ৪৪ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা। নন ওয়েজ কষ্ট ২ লক্ষ ৩৬ হাজার টাকা ৭৩৮ টাকা। সর্দার মজুরী ১৮ হাজার টাকা। ২নং হ্নীলা ইউনিয়নে ৩৮০ জন উপকার ভোগী, শ্রমিক মজুরী ৩০ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা, নন ওয়েজ কষ্ট ১ লক্ষ ৬০ হাজার ৯৪৯ টাকা, মজুরী ১৮ হাজার টাকা। ৩নং টেকনাফ সদর ইউনিয়নে ৪৭৮জন উপকারভোগী, শ্রমিক মজুরী ৩৮ লক্ষ ২৪ হাজার টাকা, নন ওয়েজ কষ্ঠ ২ লক্ষ ২ হাজার ২১০ টাকা, সদার মজুরী ১৮ হাজার টাকা। ৪নং সাবরাং ইউনিয়নে ৪৩৬ জন উপকার ভোগী, শ্র শ্রমিক মজুরী ৩৪ লক্ষ ৮৮ হাজার টাকা, নন ওয়েজ কষ্ঠ ১ লক্ষ ৮৪ হাজার ৫২৬ টাকা, সর্দার মজুরী ১৮ হাজার টাকা। ৫নং বাহারছড়া ইউনিয়নে ১৬৫ জন উপকারভোগী, শ্রমিক মজুরী ১৩ লক্ষ ২০ হাজার টাকা, নন ওয়েজ কষ্ঠ ৭০ হাজার ৪২১ টাকা, সদার মজুরী ১৮ হাজার টাকা। ৬নং সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউনিয়নে ৩৯ জন উপকারভোগী, শ্রমিক মজুরী ৩লক্ষ ১২ হাজার টাকা, নন ওয়েজ কষ্ট ১৭ হাজার ৩৬৮ টাকা, সর্দার মজুরী ১৮ হাজার টাকা।

সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ জানান- প্রবালদ্বীপ একটি পর্যটন এবং সাগর ভাংগন এলাকা হিসাবে উন্নয়নে বরাদ্ধ প্রধান্য দেয়া উচিত।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •