এম.জুবাইদ,পেকুয়া :

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের মৌলভী পাড়া ও চরি পাড়া এলাকার বাসিন্দাদের চলাচলের একমাত্র সড়ক কেটে লবণ উৎপাদনের জমি তৈরির অভিযোগ উঠেছে এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে।

এতে ওই দুই গ্রামের প্রায় তিন হাজার মানুষের চলাচলে ব্যাপক অসুবিধা হচ্ছে। এছাড়া ওই প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে পার্শ্ববর্তী বামুলা পাড়া আর্দশ এবতেদায়ি মাদ্রাসার জমি অবৈধ দখলের অভিযোগ জানিয়েছে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ।

বামুলা পাড়া আর্দশ এবতেদায়ি মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি মৌলানা মোশারফ হোসেন বলেন, মাদ্রাসার নামে খতিয়ানভুক্ত পাঁচ শতক জমি দখল করে লবণ উৎপাদনের জমি তৈরি করছেন একই এলাকার মৃত মোজাফফর আহমদের ছেলে মৌলানা শফিকুর রহমান। তাকে আমরা বারণ করলেও তিনি কর্ণপাত করছেন না। এব্যাপারে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি।

স্থানীয় সমাজসেবক আনছার উদ্দিন জানান, গ্রাম দুটির বাসিন্দাদের চলাচলের ১শ বছরের পুরানো রাস্তাটি গত দুইদিন ধরে এস্কেলেটর (মাটি কাটার বিশেষ যন্ত্র) দিয়ে কেটে লবণ মাঠের জমি তৈরি করা হচ্ছে। এতে ওই দুই গ্রামের বাসিন্দাসহ স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীদের ব্যাপক দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এছাড়াও এ রাস্তা দিয়ে প্রায় দেড় হাজার লবণ চাষি যাতায়াত করেন। এব্যাপারে আমরা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করছি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আজম উদ্দিন বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। গ্রামবাসী এবং মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষকে ইউপি কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগ দিতে বলেছি।

রাজাখালী ইউপি চেয়ারম্যান ছৈয়দ নূর বলেন, মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ আমাকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। এব্যাপারে আমি যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •