এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া:

চকরিয়ায় রাতের আঁধারে মৎস্য প্রকল্পে বিষ প্রয়োগের ঘটনা ঘটেছে। এতে মৎস্য প্রকল্পে প্রায় লক্ষাধিক টাকার সাদাজাতের মাছ মরে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত ২০ নভেম্বর রাত আনুমানিক ৯টার দিকে উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ডের পুরুত্যাখালী এলাকায় ঘটেছে এ ঘটনা। এ ঘটনায় মৎস্য প্রকল্পের মালিক মাস্টার নুরুল ইসলাম বাদি হয়ে  ২২ নভেম্বর স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগটিতে দুইজনকে বিবাদি করা হয়েছে। তাঁরা হলেন ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ডের পুরুত্যাখালী এলাকার মৃত ঠান্ডা মিয়ার ছেলে গিয়াস উদ্দিন ও মৃত ওলা মিয়ার ছেলে আবদুর রাজ্জাক।

ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য প্রকল্প মালিক মাস্টার নুরুল ইসলাম জানান, বাড়ির পাশে বর্গা নেয়া জমিতে পুকুর তৈরী করে তিনি এবছর রুই, কাতলা, তেলাপিয়া, পাঙ্গাসসহ সাদাজাতের মৎস্য চাষ করেছেন। ইতোমধ্যে মাছ গুলো প্রায় বড় হয়েছে। কিছু কিছু বিক্রিও করছেন। তিনি দাবি করেন, কয়েকদিন আগে বিবাদিরা তাঁর মৎস্য প্রকল্প থেকে সেচ কাজে ব্যবহার করতে পানি নিতে চেষ্ঠা করে। পানি কম হওয়ায় তাদেরকে দিতে অপারগতা জানান মাস্টার নুরুল ইসলাম। তিনি অভিযোগ করেছেন, পানি না দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে অভিযুক্তরা রাতের আঁধারে মৎস্য প্রকল্পে বিষ ঢেলে দিয়েছে। তাতে প্রায় লক্ষাধিক টাকা মাছ মরে গেছে বলে জানান মৎস্য প্রকল্প মালিক নুরুল ইসলাম।

কোনাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দিদারুল হক সিকদার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মৎস্য প্রকল্পে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধনের ঘটনায় ভুক্তভোগী মালিক বাদি হয়ে পরিষদে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। বিবাদিপক্ষকে ডেকে তদন্ত সাপেক্ষ বিষয়টি সমাধানের চেষ্ঠা করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •