ফরিদুল অালম দেওয়ান, মহেশখালী:

মহেশখালীতে শ্বশুর বাড়ীর পাশে রহস্যজনক ভাবে এক যুবককে গলা কেটে জবাই করে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। তবে এঘটনায় কে বা কারা জড়িত তা রহস্যাবৃত। ঘটনাটি ঘটেছে  ২২ নভেম্বর ভোরে উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের ছনখোলা পাড়া গ্রামে। আহত যুবকের নাম আহসান উল্লাহ (৩৫)। সে পার্শ্ববর্তী কালারমার ছড়া ইউনিয়নের মির্জির পাড়া গ্রামের জামাল হোসেনের পুত্র। অাশংকা জনক অবস্থায় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে মহেশখালী পরে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি হলে পরে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
এলাকাবাসীরা জানান, অাহত আহসান উল্লাহকে গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত সহ মুমুর্ষ অবস্থায় গতকাল বুধবার ভোরে তার শ্বশুরবাড়ী ছনখোলা পাড়াস্থ হোয়ানক ইউপি মেম্বার আব্দুল করিমের বাড়ী সংলগ্ন পান বরজের পাশে পাওয়া যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের ধারণা, আহত আহসান উল্লাহর সহিত তার স্ত্রী সালমা আকতার বুধুর দাম্পত্য কলহের জের ধরে স্ত্রী বাবার বাড়ীতে রয়েছে। সে কারণে শ্বশুর বাড়ীতে সে অাক্রান্ত হতে পারে।

এ ব্যাপারে স্ত্রীর সৎ ভাই আব্দুল করিম মেম্বার জানান, তাকে কে বা কারা অাঘাত করেছে তারা জানে না। সে ভোরে অাহত অবস্থায় নিজ বাড়ীর দিক থেকে হেঁটে বিলের পথ দিয়ে আসতে লোকজন দেখে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

আহতের বড়ভাই অামান উল্লাহ জানান, তার ভাইকে কারা অাঘাত করেছে তারাও জানতে পারে নাই। আহত যুবক এখনো কথা বলতে পারছে না। চমেক হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •