তাজুল ইসলাম পলাশ , সিবিএন :

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষ একই স্থানে একই সময়ে সমাবেশ ও সম্মেলনের ডাকায় এলাকাজুড়ে নেতাকর্মীদের মাঝে চরম উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। সকাল থেকে দুই পক্ষের নেতাকর্মীরা মাঠ দখলেরও প্রস্তুতি নিচ্ছে। কে কার আগে সমাবেশে যাবে এ নিয়ে চলছে জোর প্রস্তুতি। সোমবার (২০ নভেম্বর) বিকেল ৩টায় উপজেলার চরণদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দুই পক্ষ এ সম্মেলনের প্রস্তুতি নিয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ ইউনিস্কোর ওয়ার্ল্ডস ডকুমেন্টারি হেরিটেজ হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ায় নাগরিক সমাবেশ ডাকা দেয় দুই পক্ষ। এ নিয়ে এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। এখনো পর্যন্ত প্রশাসন থেকে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

স্থানীয় নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কুয়েতে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত এসএম আবুল কালাম ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিনের অনুসারীরা ওই স্থানে সমাবেশের ডাক দেয়। আবুল কালামের পক্ষে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে সংসদ সদস্য মাঈনুদ্দিন খাঁন বাদল এবং বিশেষ অথিতি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আতাউল হক। এদিকে মোসলেম উদ্দিনের জন সভায় প্রধান অথিতি হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আমিন চৌধুরী উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। এ সমাবেশকে ঘিরে এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। মাঈনুদ্দিন খান বাদলের অনুসারী হিসেবে পরিচিত ছাত্রনেতা জনি জানান, বিকেল তিন এমপি সাহেব ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। এজন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন বলে তিনি জানান।

বোয়লখারী থানার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিমাংশু কুমার দাস রানা জানান, দুই পক্ষ একই স্থানে সম্মেলন করার কথা রয়েছে। তবে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ যে কোন পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রস্তুুত রয়েছে। এ ব্যাপারে পুলিশ ব্যাপক প্রস্তুতিও নিয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •