মোস্তফা কামালঃ চকরিয়া উপজেলার মালুমঘাট মহা-সড়কে যাত্রীবাহি বাসের সাথে দেশ ভ্রমণকারী দূরপাল্লার মোটরসাইকেলের সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের পাল্টা পাল্টি হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০জন কম বেশী আহত হয়েছে।

আহতদের মধ্যে বাস চালককে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। গত ১৮ নভেম্বর বিকাল ৪টার দিকে চট্টগ্রাম কক্সবাজার মহা সড়কের চকরিয়া উপজেলার মালুমঘাট বাজারের অদূরে রিংভং জিরানিখোলা বট গাছ নামক স্থানে ঘটেছে এ ঘটনা। মহা সড়কে দুই গাড়ির সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে উভয় পক্ষের মানুষের মধ্যে পাল্টা পাল্টি হামলা ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ভাবে মালুমঘাট হাই-ওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং সংঘর্ষে জড়িত থাকা দেশ ভ্রমণকারী রাইড়ার দলের ১৪টি মোটরসাইকেল ও যাত্রীবাহি বাসটি জব্দ করেছে।

স্থানীয়রা জানান, এ দিন ১৮/২০টি মোটর সাইকেল কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামের দিকে যাচ্ছিলেন। পতিমধ্যে ঘটনাস্থল ওই জায়গায় পৌছলে একই মূখী হানিফ পরিবহনের যাত্রীবাহি বাস ঢাকা মেট্রো-ব ১১-১৪২৩নং গাড়িটির সাথে মোটর সাইকেল দলের একটি বাইকের সাথে ধাক্কা লাগে। এতে বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল চালক গাড়ি থেকে রাস্তায় পড়ে যায়। এ ঘটনায় তার দলের অন্য সদস্যরা বাসটি থামিয়ে বাস চালকের সাথে কথা কাটা কাটির এক পর্যায়ে উভয় পক্ষ আক্রমণ – হামলায় জড়িত হয়।

জানতে চাইলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মালুমঘাট হাই-ওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির অফিসার ইনচার্জ এস.আই. মোঃ রুহুল আমিন বলেন, ঘটনার সমাধানে আরাকান সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের যুগ্ম সম্পাদক কামাল আজাদের সাথে তাদের আলোচনা হচ্ছে। তারা মামলায় না গিয়ে উভয়পক্ষ আপোষ হয়ে আসলে তাদের জব্দকৃত গাড়ি ছেড়ে দেওয়া হবে।

এ দিকে এই ঘটনার খবর পেয়ে ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নুরুল আমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও উত্তেজিতদের শান্তনা করেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •