#পরীক্ষাকেন্দ্র ১০১
#প্রাথমিক ৪৪০৬২
#ইবতেদায়ী ১২১৪৯

ইমাম খাইর, সিবিএন:
প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা আজ (১৯ নভেম্বর) শুরু হচ্ছে। শেষে হবে ২৬ নভেম্বর। ৯ম বারের মত সারাদেশে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদিনের পরীক্ষা সকাল ১১টায় শুরু হয়ে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত চলবে। অন্যান্যবারের মতো এবারো বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন পরীক্ষার্থীদের অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় দেওয়া হচ্ছে।

জেলায় মোট ১০১ পরীক্ষাকেন্দ্রে ৫৬২১১ জন অংশ গ্রহণ করছে। এদের মধ্যে প্রাথমিক সমাপনিতে ৪৪০৬২ জন। এবতেদায়ীতে ১২১৪৯ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ( ভারপ্রাপ্ত ) মোঃ শহিদুল আজম জানান, জেলায় পিএসসি ও এবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা সফল ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্নের জন্য সকল প্রস্তুতি গ্রহন করেছে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন। কঁচিকাচা শিক্ষার্থীদের প্রথম পাবলিক পরীক্ষা যেন নির্বিঘেœ অংশগ্রহণ করতে পারে সে বিষয়ে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন উক্ত জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা । তিনি ১০১টি কেন্দ্রে সকল পরীক্ষা সামগ্রি পাঠানো হয়েছে বলে জানান।

উপজেলা ভিত্তিক প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী পরীক্ষার্থীরা হলো:
সদরের ২০ কেন্দ্রে পিএসসিতে ৭৩২৯ জন, ইবতেদায়ীতে ২৯৪৬ জন। রামুতে ১২ কেন্দ্রে পিএসসিতে ৫৪১৯ জন, ইবতেদায়ীতে ১০৫৩ জন। চকরিয়ার ২৪ কেন্দ্রে পিএসসিতে ৮৮৮৩ জন, ইবতেদায়ীতে ২৪৪৮ জন। পেকুয়ায় ৭ কেন্দ্রে পিএসসিতে ৪২০১ জন ইবতেদায়ীতে ১২১৫ জন। কুতুবদিয়ায় ৬ কেন্দ্রে পিএসসিতে ৩৩১৮ জন ইবতেদায়ীতে ৫৭২ জন। মহেশখালীতে ৯ কেন্দ্রে পিএসসিতে ৬০৬৫ জন ইবতেদায়িতে ১৬০৪ জন। উখিয়ায় ১২ কেন্দ্রে পিএসসিতে ৪৬১৯ জন ইবতেদায়িতে ৯১১ জন। এবং টেকনাফে ১১ কেন্দ্রে পিএসসিতে ৪২২৮ জন এবং ইবতেদায়িতে ১৪০০ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে। এছাড়া জেলায় ইংরেজি ভার্সনে পরীক্ষার্থী রয়েছে ৩৩ জন।

আজ প্রথম দিনে উভয় পরীক্ষায় ইংরেজি, আগামী কাল ২০ নভেম্বর বাংলা, ২১ নভেম্বর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়, ইবতেদায়িতে সমাজ এবং বিজ্ঞান, ২২ নভেম্বর প্রাথমিক বিজ্ঞান ও আরবি এবং ২৩ নভেম্বর ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা, ইবতেদায়িতে কুরআন ও তাজবিদ এবং আকাঈদ ও ফিকহ, সবশেষে ২৬ নভেম্বর উভয় পরীক্ষায় গনিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পৌরসভার ১১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২টি মাদ্রাসার ৬১৯ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহন করছে। পরীক্ষা সুষ্ঠু ও নকলমুক্ত করতে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

কক্সবাজার সদর উপজেলার ২০টি কেন্দ্রের বাইরে বিভিন্ন নির্দেশনা দিয়ে ব্যানার টাঙ্গানোর নির্দেশনা দিয়েছেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নোমান হোসেন। তিনি বলেন, নিয়মানুযায়ি কেন্দ্রের নির্দিষ্ট সীমানার মধ্যে ১৪৪ ধারা জারি থাকবে। পরীক্ষা নির্বিঘ্ন করতে সকলকে সহযোগিতা করা উচিৎ।

প্রাথমিক ও এবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী বৃত্তিঃ
সমাপনী পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করে থাকে সরকার। প্রাথমিক সমাপনীতে ৩৩ হাজার ট্যালেন্টপুল ও ৪৯ হাজার সাধারণ কোটাসহ মোট ৮২ হাজার ৫০০ জনকে বৃত্তি প্রদান করা হয়। ট্যালেন্টপুল ও সাধারণ কোটায় বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা যথাক্রমে ৩০০ ও ২২৫ টাকা হারে বৃত্তি পায়।

ফলাফলঃ
প্রতিবারের মত এবারো ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে ফল প্রকাশের সম্ভাব্য সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •