আনোয়ার হোছাই ঈদগাও:

কক্সবাজার সদরের ঈদগাওতে যোতুক লোভি স্বামীর মারধরে স্ত্রী মৃত সন্তান প্রসব করেছে অভিযোগ উঠেছে । বর্বর এ ঘটনাটি ঘটেছে ঈদগাওস্থ জালালাবাদ ইউনিয়নের পালাকাটা এলাকায়।

অভিযোগে জানা যায়, উক্ত এলাকার আবু বকরের ছেলে আবদু রশিদ তার স্ত্রী একই এলাকার মৃত অছিয়র রহমানের কন্যা নুর আয়েশা (২৬) কে গত বৃহস্পতিবার যৌতুকের দাবিতে ব্যাপক মারধর করে। এক পর্যায়ে ৮ মাসের অন্ত:সত্তা স্ত্রীর পেটে লাথি মেরে পাষন্ড স্বামী পালিয়ে যায় ।সংবাদ পেয়ে স্বজনরা রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় চিকিৎসকের শরণাপন্ন হলে তিনি সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়।কিন্তু হাসপাতালে যাওয়ার পূর্বেই যন্ত্রণায় কাতরানো নুর আয়েশা শুক্রবার হাত ভাঙ্গা ও মাথায় আঘাতের চিহ্নসহ মৃত সন্তান প্রসব করে। মুমুর্ষ অবস্থায় মৃত বাচ্চাসহ মা’কে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতাল পুলিশ মৃত বাচ্চা দেখে ও রোগীর অভিভাবকের কাছ থেকে ঘটনার বর্ণনা শুনে থানা পুলিশকে অবহিত করে।

এসআই মশিউর রহমান হাসপাতালে পৌছে লাশের সুরতহাল তৈরি করেন এবং রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে জানিয়ে বলেন, লাশের বাম হাত ভাঙ্গা এবং শরীরের অন্যান্য অংশে একাধিক ক্ষত রয়েছে।

ঈদগাও পুলিশের এএসআই মহি উদ্দিন জানান,থানার নির্দেশে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গেলে, স্বজন ও প্রতিবেশীরা উপরোক্ত ঘটনার বর্ণনা দেন,যা তিনি উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে অভহিত করেছেন।

এদিকে এ বর্বর ঘটনার সংবাদ জানাজানি হলে লোকজন চরম ঘৃণা প্রকাশ করে পলাতক নরপিশাচকে অবিলম্বে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।এদিকে নুর আয়েশার ভাই জসিম উদ্দিন জানান,বিগত ১০ বছর পূর্বে রশিদের সাথে তার বোনের পারিবারিক ভাবে বিবাহ হয়।কিছুদিন সুখে সংসার করলেও এরপর থেকে তার বোনকে যৌতুকের জন্য নির্যাতন করে আসছে। একমাত্র সন্তানের দিকে চেয়ে বারবার স্থানীয় মেম্বার ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের অবয়ে সব সহ্য করে আসলেও বিগত ১৫ দিন পূর্বে ফের মারধর করে।এ ঘটনা মেম্বারকে জানালে স্বামী উধাও হয়ে যায়। ঘটনার দিন হঠাৎ উধাও থেকে ফিরে স্ত্রীকে আবারো মারধর করে পেটের বাচ্চাকে খুন করে পালিয়ে যায় পাষন্ড স্বামী।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মেম্বার আবু তাহের জানান,সংঘটিত ঘটনায় মেয়ের পরিবার মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •