জাপার আগাম মনোনয়ন: সরকারকে চাপে রাখার কৌশল নাকি বাণিজ্য?

বাংলাট্রিবিউন:
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে একবছরের বেশি সময় হাতে আছে। তবে এখনই আগ্রহী প্রার্থীদের মনোনয়ন দিতে শুরু করেছে জাতীয় পার্টি। গত কয়েকদিনে রাজশাহী, বরিশালসহ কয়েকটি এলাকার একাধিক আগ্রহী প্রার্থীর হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র। গঠনতান্ত্রিকভাবে দলের মনোনয়ন বোর্ড দায়িত্বপ্রাপ্ত হলেও সেখানে এ ব্যাপারে কোনও আলোচনাই হয়নি। তড়িঘড়ি করে এসব মনোনয়ন দেওয়ার পেছনে কী কারণ থাকতে পারে তা নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা। সরকারকে চাপে রাখতে জাপা চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ এই কৌশল নিয়েছেন বলা হলেও এর পেছনে বাণিজ্য ও লেনদেনের সম্পৃক্ততা থাকতে পারে বলেও অভিযোগ উঠেছে। জাতীয় পার্টির সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।
জাপার সিনিয়র কয়েকজন নেতার অভিযোগ, আগাম মনোনয়নের বিষয়টি চূড়ান্ত না হলেও প্রাথমিক বাছাইয়ের কারণ মূলত দু’টি। এর মধ্যে একটি হচ্ছে, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে চাপে রাখার কৌশল হিসেবে অগ্রিম মনোনয়ন দিচ্ছেন এরশাদ। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোট বেঁধে নির্বাচন করলে জাপার চাহিদা মোতাবেক আসন প্রাপ্তিই হবে প্রধান কারণ। দ্বিতীয় কারণ হিসেবে দলের তিন সিনিয়র নেতার অভিযোগ, অগ্রিম মনোনয়নের পেছনে বাণিজ্যচিন্তা কাজ করছে এরশাদঘনিষ্ট দলের একাংশের মধ্যে।
সরকারের একটি প্রভাবশালী গোয়েন্দা সংস্থার সূত্র বাংলা ট্রিবিউনকে জানায়, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য সম্ভাব্য প্রার্থীদের একটি তালিকা সম্প্রতি প্রণয়ন করা হচ্ছে। এই তালিকায় আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাপা-এমনকি বাম দলগুলোর প্রার্থীদের নামও যুক্ত করা হচ্ছে। এই তালিকা প্রণয়নের পরই আসনভিত্তিক সমঝোতার পথে যাবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। সূত্রের ধারণা, তালিকা প্রণয়নের খবরটি এরশাদের কাছে গুরুত্ব পেয়েছে। এ কারণেই টার্গেট করা আসনগুলোয় আগাম প্রার্থী ঘোষণা করছে জাপা।
আগাম মনোনয়ন কাঙ্ক্ষিত আসন আদায়ে সরকারকে চাপে রাখার কৌশল কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে জাপার মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা তিন বার সরকারের সঙ্গে ছিলাম। দীর্ঘ সময় তাদের সঙ্গে আমাদের সহাবস্থান চলছে। আমরা সরকারকে যতটা জানি তাতে চাপ দেওয়ার প্রয়োজন হবে না। আলোচনার ভিত্তিতে অতীতেও সমাধান হয়েছে, ভবিষ্যতেও হবে।’
জাপার সিনিয়র একজন নেতা জানান, কয়েক মাস আগে সাংগঠনিক কার্যক্রম গোছানো ও দলের অভ্যন্তরীণ সমস্যা-বিরোধ দূর করতে সাংগঠনিকভাবে চিঠি দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। ওই চিঠিটিকেই মনোনয়নের প্রাথমিক চিঠি হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।
গত কয়েকদিনে রাজশাহী, বরিশালসহ কয়েকটি এলাকার জাপার কয়েকজন নেতাকে মনোনয়নের চিঠি দেওয়া হয়। পাশাপাশি চিঠিগুলোয় স্থানীয় সাংগঠনিক বিরোধ দূর করতে ব্যবস্থা নিতেও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। গত ১৫ নভেম্বর রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে রাজশাহী মহানগর জাপা সভাপতি শাহাবুদ্দিন বাচ্চুকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। দলের চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ স্বাক্ষরিত চিঠি বাচ্চুর কাছে হস্তান্তর করেন জাপার মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি। এছাড়া বরিশালে গোলাম কিবরিয়া টিপুর কাছে প্রাথমিক মনোনয়নপত্র হস্তান্তর করা হয়েছে।
জাপার প্রেসিডিয়ামের একজন সদস্য (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) অভিযোগ করেন, ‘গঠনতন্ত্রে বা সরকারি নিয়মে, কোনও অবস্থাতেই অগ্রিম মনোনয়নের কিছু নেই। এমনকি মনোনয়ন বোর্ডেও কোনও আলোচনা হয়নি। তাহলে কিভাবে মনোনয়ন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এটা দুঃখজনক।’
প্রেসিডিয়ামের আরেক সদস্যের ভাষ্য, ‘আমরা শুনেছি একটি কথা শুনিয়ে টাকাও তোলা হচ্ছে। কথাটি হচ্ছে, আগামী নির্বাচনে প্রতিবেশী একটি দেশের সহায়তা নিশ্চিত। তাই মনোনয়ন নিলেই বিজয় নিশ্চিত। এমন কথা ছড়ানো হচ্ছে দলে। আমার ধারণা, মূলত বাণিজ্য করতেই আগাম মনোনয়নপত্র।’
প্রেসিডিয়ামের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমি এই বিষয়গুলো দলের চেয়ারম্যানের কাছে তোলার চেষ্টা করি। এ কারণে একটি স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠী আমাকে বের করে দিতে তৎপর। তারা এরশাদকে বরাবরই ভুল বোঝানোর চেষ্টা করে।’
রাজশাহী পবা-মোহনপুর আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে প্রাথমিক মনোনয়ন পাওয়া মহানগর জাপা সভাপতি শাহাবুদ্দিন বাচ্চু দীর্ঘদিন ধরেই আমিরকায় বসবাস করছেন। তার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ আছে এবং দলে অনিয়মিত থাকার কথা বলছেন একজন প্রেসিডিয়ামের সদস্য। তিনি মাঝেমাঝেই দেশে থাকেন না।
শাহাবুদ্দিন বাচ্চুর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রসঙ্গে জাপা মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘প্রথমত তাকে যে মনোনয়নপত্র দেওয়া হয়েছে, সেটা কেবল কাজ করার জন্য। চূড়ান্ত করার আগে অনেক যাচাই-বাছাই করবো। আর যেহেতু তিনি সক্রিয় মহানগরে, তাই তাকে দেওয়া হয়েছে। তিনি আমাদের বলে যান আমেরিকায়, আবার ফিরে আসেন। অন্য কিছু না।’
মনোনয়ন বাণিজ্য সম্পর্কে রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, ‘আমাদের একটা চা খাওয়ারও সুযোগ নেই। আম ও লিচুর সময় হলে তো পেতাম। আত্মীয়স্বজন, নেতাকর্মী সবাই আম-লিচু খাওয়ায়। এর বেশি না। বাণিজ্যের কোনও সুযোগ নেই।’
রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, ‘দলের চেয়ারম্যান মনোনয়নের আগে যাচাই-বাছাই করবেন, এরপরই চূড়ান্ত মনোনয়ন। তবে যাদের দেওয়া হয়েছে তারা আমাদের দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত মানুষ, তাদের উপেক্ষা করা যাচ্ছে না।’
এদিকে, আগাম মনোনয়নের বিষয়ে জাপার প্রেসিডিয়ামের অনেক সদস্যই কিছু জানেন না। তারা বলছেন, মনোনয়ন দেওয়া হয় বোর্ডের মাধ্যমে। আর প্রেসিডিয়াম সদস্যদের মধ্যে ৯ জনকে নিয়ে সংসদীয় কমিটিই মনোনয়ন বোর্ড। দলের চেয়ারম্যান, সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান, কো-চেয়ারম্যান, প্রতি বিভাগ থেকে প্রেসিডিয়াম সদস্যদের সমন্বয়ে সংসদীয় কমিটি মনোনয়ন বোর্ডের দায়িত্ব পালন করে।
কো-চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, ফখরুল ইমাম আগাম মনোনয়নের বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে বাংলা ট্রিবিউনকে জানান।
জানতে চাইলে এরশাদের রাজনৈতিক সচিব ও প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভরায় বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘সার্বিক মনোনয়ন নয়, এটা নির্দিষ্ট কিছু আসনের জন্য। যেখানে সাংগঠনিক অবস্থা জোরদার করা প্রয়োজন সেসব এলাকায় কিছু প্রার্থীকে দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। এটা সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত ছিল, যেখানে সমস্যা আছে সেখানে কাউকে দায়িত্ব দিতে হবে। এটি নিয়ে ভুল বোঝাবুঝির অবকাশ নেই।’
সুনীল শুভরায় আরও বলেন, ‘নির্বাচনের আগে যেখানে মনোনয়ন দেওয়া হবে, ওইসব স্থানে যদি একাধিক প্রার্থী থাকে, ওইসময় সংসদীয় বোর্ড সাক্ষাৎকার নেবেন। এরপর মনোনয়ন দেওয়া হবে।’
উল্লেখ্য, রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগেই দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করেন এরশাদ। ৫ নভেম্বর রসিকের তফসিল ঘোষণার আগের দিন ৪ নভেম্বর রাতে নিজ বাসায় ডেকে নিয়ে রংপুর মহানগর জাপা সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফার হাতে মনোনয়নপত্র তুলে দেন জাপার চেয়ারম্যান। এই আগাম মনোনয়ন নিয়েও আলোচনা তৈরি হয় রাজনৈতিক মহলে।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

৩০ নভেম্বরের মধ্যে বিনা জরিমানায় আয়কর রিটার্ন জমা দেয়া যাবে

চট্টগ্রামের কর্ণফুলীতে পুনরায় মাল্টি চ্যানেল স্লিপওয়ে নির্মাণ শুরু

স্কুল,কলেজ ফাঁকি দিয়ে শিক্ষার্থীরা কি করে দেখার আহবান মেয়র নাছিরের

পল্টন থানার তিন মামলায় মির্জা আব্বাস ও আফরোজা আব্বাসের আগাম জামিন

মহেশখালীতে বন্দুক ও কাতুর্জসহ মানবপাচার মামলার আসামী গ্রেফতার

চকরিয়া থানার আধুনিক দৃষ্টি নন্দন ভবন উদ্বোধন করলেন আইজিপি

অধ্যক্ষ আবদুল হক একটানা তিনবার সেরা প্রতিষ্ঠান প্রধান হলেন

প্রাথমিকে ‘কমন প্রশ্নে’ সহজ পরীক্ষা

আবদুর রহমান বদি কি নির্বাচন করতে পারবেন ?

পুলিশের আইজি এখন কক্সবাজারে

খরুলিয়ায় পিক-আপ সিএনজি ও বাসের ত্রিমুখী সংঘর্ষ

টেকনাফে কথিত বন্দুকযুদ্ধে একজন নিহত

দেশে ১৬৬৬ জন মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত কয়েদীর ফাঁসি হাইকোর্টে অনুমোদনের অপেক্ষায়

বিএনপি’র মনোনয়ন প্রার্থীদের সাক্ষাতকার আজ রোববার থেকে শুরু

দুবাইয়ে সেরা গীতিকারের সম্মাননা পেলেন নাটোরের মেয়ে সোহানী

আজ চকরিয়া আসছে আইজিপি ড. জাবেদ পাটোয়ারী

পেকুয়ায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন!

তাহলে কী জাফর-আশেক-কানিজ-বদি পাচ্ছেন নৌকার টিকেট!

ইসলামাবাদে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় যুবক নিহত

‘নেতানিয়াহু, ট্রাম্প ও বিন সালমান শয়তানের ৩ অক্ষশক্তি’