এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া :

চকরিয়া উপজেলার কাকারা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কার্যকরী কমিটির উদ্যোগে গতকাল ১৫ নভেম্বর বিকালে জরুরী বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারমান শওকত ওসমানের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ জাফর আলম এমএ।

ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজেম উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফাসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ৯০এর স্বৈরচারী বিরোধী আন্দোলনের ছাত্রনেতা সরওয়ার আলম, সহ-সভাপতি এমআর চৌধুরী, মুজিবুল হক চৌধুরী রতন, ছৈয়দ আলম কমিশনার, যুগ্ম সম্পাদক শাহনেওয়াজ তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজবাউল হক, বন ও পরিবেশ সম্পাদক সাহাবউদ্দিন, আওয়ামীলীগ নেতা রুস্তম শাহরিয়ার।

বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ নেতা ফয়সল চৌধুরী, আবদুল কাদের মেম্বার, জাফর আলম, উপজেলা যুবলীগের যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক ওহিদুর রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম চৌধুরী, বাবুল, মুবিনুল হক, মাসুক আহমদ, নুরুল আবছার, লিটন। এছাড়াও অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সম্পাদক এবং সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ জাফর আলম বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে দুই মেয়াদে আওয়ামীলীগ সরকার রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসার পর থেকে চকরিয়া-পেকুয়া জনপদে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম অনেক শক্তিশালী হয়েছে। নেতাকর্মীরা বর্তমানে অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে উজ্জেবিত। তার প্রমাণ চকরিয়া পৌর বাসটার্মিনালে উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে সেতুমন্ত্রী জননেতা ওবায়দুল কাদেরকে দেয়া সংবর্ধনা সভাটি। চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলা ও মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা এবং চকরিয়া পৌরসভার প্রতিটি জনপদের নেতাকর্মীরা আজ ঐক্যবদ্ধ ও অবিচল আছে বলেই সেতুমন্ত্রীর জনসভাটি সফল করতে পেরেছি।

তিনি বলেন, আমাদেরকে ঐক্যের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। এখন থেকে প্রতিটি জনপদে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম জোরদার করতে নেতাকর্মীদেরকে কাজ করতে হবে। আগামী বছর জাতীয় নির্বাচন। এই নির্বাচনে আমাদেরকে বিজয় লাভ করতে হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আবারও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাইলে সেইভাবে সকলকে কাজ করতে হবে। মনে রাখতে হবে দলাদলি আর বিভেদ নয়, আগামী নির্বাচনে চকরিয়া-পেকুয়া আসনে বিজয় নিশ্চিত করতে হলে আওয়ামীলীগের সকলস্তরের নেতাকর্মীর ঐক্যের কোন বিকল্প নেই।

অপরদিকে সোমবার বিকালে উপজেলার বমুবিলছড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলম। সভায় সভাপতিত্ব করেন বমুবিলছড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও কক্সবাজার জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য অধ্যাপক সোলতান আহমদ।

ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফাসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সাবেক ছাত্রনেতা ছরওয়ার আলম, যুগ্ম সম্পাদক শাহনেওয়াজ তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক মিজবাউল হক।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মনছুর উদ্দিন, সহ-সভাপতি এমতিয়াজ, মোহাম্মদ আলী, আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল হক, কফিল উদ্দিন, মোজাফফর আহমদ, আবদুস ছবুর, রফিক আহমদ, হারুনর রশিদ, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে আলমগীর, ফরিদুল আলম, আবু ছালাম, আবু তৈয়ব, মানিক বড়–য়া, সাইফুল ইসলাম, রোস্তম আলী, মিজানুর রহমান, রমিজ উদ্দিন, নুরুল আমিন, ইবনে আমিন, মোহাম্মদ ইসমাইল, লোকমান হোসেন, ছালেহ আহমদ, আওয়ামীলীগ নেতা রুপন বড়–য়া, মোবারক আহমদ, আহামুদুর রহমান, কফিল উদ্দিন মেম্বার, শফিউর রহমান মেম্বার, আবদুর রহিম মেম্বার, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ডা. মিজানুর রহমান, সহ-সভাপতি শেখ তোফায়েল আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, ছাত্রলীগের সভাপতি শাখাওয়াত হোসেন প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। #

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •