চবি ছাত্রলীগের দুই পক্ষ মুখোমুখি, উপাচার্য কার্যালয়ে ভাঙচুর

আরিচ আহমেদ শাহ, (এনটিভি) চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে বর্ধিত কর নিয়ে আন্দোলনকারী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক আমিন উদ্দিনের অপসারণ এবং হুমকি দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই পক্ষ পৃথক কর্মসূচি পালন করেছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের একাংশ (মেয়র আজম নাছির সমর্থিত) নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করে প্রশাসন ভবনের সামনে গাড়ি ভাঙচুর ও প্রশাসন ভবনে হামলা চালায়। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেশন এলাকা ও জিরো পয়েন্টে অবস্থান নিয়ে তিন ঘণ্টা ক্যাম্পাস অবরুদ্ধ করে রাখে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কার্যালয়, প্রশাসনিক ভবনসহ বেশ কিছু গাড়ি ভাঙচুর করে তারা। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটল ট্রেনের হোসপাইপ কেটে দেয় এবং প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে এক ঘণ্টা অবরোধ করে। আজ মঙ্গলবার দুপুর ১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত দফায় দফায় এসব ঘটনা ঘটে। এতে করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়েন বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজার হাজার শিক্ষার্থী ও শিক্ষক-কর্মচারী ও কর্মকর্তা। পরে প্রশাসনের আশ্বাসে তারা মূল ফটকের তালা খুলে দেয়।

এসব বিষয়ে সংবাদ সংগ্রহ করতে যাওয়া বাংলা ভিশনের চবি প্রতিনিধি মো. শাহাজানকে মারধর করে ছাত্রলীগের কয়েকজনকর্মী। বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের স্থগিত হওয়া কমিটির সভাপতি আলমগীর টিপু ও ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি মো. মামুন ছাত্রলীগের একাংশের নেতৃত্ব দেন।

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি মো. মামুন জানান, চট্টগ্রামে বর্ধিত কর নিয়ে আন্দোলনকারী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক আমিন উদ্দিন অবৈধভাবে নিয়োগ পেয়েছেন। তাঁর বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের শর্তপূরণে ব্যর্থতা ও প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে। তাঁকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অপসারণের দাবি জানান তাঁরা।

এদিকে, ট্রেনের হোস পাইপ কাটায় নগরীর উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার দেড়টার ট্রেন দেড় ঘণ্টা দেরি করে ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ছেড়ে যায়।

অন্যদিকে, শিক্ষককে হুমকি, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ভবন ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্রলীগের আরেকটি অংশ (সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী সমর্থিত) সমাবেশে ছাত্রলীগ বিশ্ববিদ্যালয় সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি সুজন বক্তব্য রাখেন। সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে শিক্ষক আমির উদ্দিনের ওপর হামলাকারীদের বিচারের দাবি জানান।

সমাবেশে ফজলে রাব্বি সুজন বলেন, ‘সংবিধান অনুযায়ী সকল নাগরিকের মতামত প্রকাশের অধিকার আছে। নাগরিক দায়িত্ব হিসেবে আমির উদ্দিন স্যার শহরে গৃহকর নিয়ে আন্দোলন করেছেন। যার সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনো যোগসূত্র নেই। কিন্তু ছাত্রলীগ নামধারী কিছু কর্মী তাদের নেতার নির্দেশে আমির স্যারের মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দেয়। আমরা সেই নামধারী ছাত্রলীগকর্মী ও প্রশাসনিক ভবনে যারা হামলা চালিয়েছে তাদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে শাস্তির আওতায় আনতে প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি। না হলে আমরা অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মসূচি পালন করব।’

গত রোববার আনুমানিক দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব এডুকেশন রিসার্চের সহযোগী অধ্যাপক মুহাম্মদ আমির উদ্দিনকে মেয়র নাছির উদ্দিনের অনুসারী হিসেবে পরিচয় দিয়ে ১০-১২ জন মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দেয়। অধ্যাপক আমির বর্ধিত হোল্ডিং ট্যাক্সের বিরুদ্ধে আন্দোলনরত সংগঠন করদাতা সুরক্ষা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক।

ভাঙচুর ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে অবরোধ বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী জানান, ছাত্রলীগের একাংশ মিছিল নিয়ে তারা উপাচার্য কার্যালয়ে গিয়ে উপাচার্যের সঙ্গে কথা বলার পরে ভবন থেকে বের হওয়ার সময় প্রশাসনিক ভবনের বেশ কিছু জানালা ও গাড়ি ভাঙচুর করে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে তালাসহ শাটল ট্রেনের হোসপাইপ কেটে দেয়। তবে এসব বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রক্টর জানান, শিক্ষকের আমির উদ্দিনের অভিযোগে বিষয়ে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং ছাত্রলীগের স্বারক লিপির ভিত্তিতে তিন সদস্যের আরেকটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদের দুই সপ্তাহের মধ্যে রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে। এ রিপোর্টের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

এই জনপদটি ইয়াবা নামক বিষ বৃক্ষের আবক্ষে নিম্মজ্জিত : সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন

যুগ্মসচিব হলেন কক্সবাজারের সন্তান শফিউল আজিম : অভিনন্দন

ধর্মীয় শিক্ষা মানুষের মাঝে মূলবোধের সৃষ্টি করে-এমপি কমল

কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের অভিযানে ১৪জন আসামী গ্রেফতার

কক্সবাজার জেলা পুলিশকে আইসিআরসির ২৫০ বডি ব্যাগ হস্তান্তর

চকরিয়ায় পল্লীবিদ্যুতের ভুতুড়ে জরিমানা নিয়ে আতঙ্ক!

ঈদগাঁওয়ে পাহাড় কাটার দায়ে এক নারীকে ১ বছর কারাদন্ড

শুধু চালককে অভিযুক্ত করে লাভ নেই আমাদেরও সচেতন হতে হবে-ইলিয়াছ কাঞ্চন

মাওলানা সিরাজুল্লাহর মৃত্যুতে জেলা জামায়াতের শোক

কক্সবাজারের ৩দিন ব্যাপী ‘প্রাথমিক চক্ষু পরিচর্যা’ কর্মশালার উদ্বোধন

‘ঘরের ছেলে’র বিদায়ে ব্যথিত পেকুয়াবাসী

শিল্পী ফাহমিদা গ্রেফতার : জামিনে মুক্ত

‘মাশরুম একটি অসীম সম্ভাবনাময় ফসল’

তথ্য প্রযুক্তি’র সেবা সাধারণের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে সরকার বদ্ধ পরিকর : শফিউল আলম

চট্টগ্রামে জলসা মার্কেটের ছাদে ২ কিশোরী ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৬

কোটালীপাড়ায় নিজ জমিতে অবরুদ্ধ ৬১ পরিবার : মই বেয়ে যাদের যাতায়াত

জামায়াত নেতা শামসুল ইসলামকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ ও মুক্তি দাবী

দুর্ঘটনারোধে সচেতনতার বিকল্প নেই : ইলিয়াস কাঞ্চন

Google looking to future after 20 years of search

ইবাদত-বন্দেগিতে মানুষ যে ভুল করে