বলরাম দাশ অনুপম :

বিপুল উৎসাহ-উদ্দিপনা আর মাঙ্গলিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে শুরু হয়েছে সার্বজনীন শ্রীশ্রী রাস মহোৎসব। খুরুশকুল পালপাড়াস্থ রাস বিহারী মন্দির প্রাঙ্গনে শুরু হয়েছে ৫ দিনব্যাপি এই রাস মহোৎসব। উৎসবের প্রথম দিনে চট্টগ্রাম সরকারী সিটি কলেজের প্রাক্তণ অধ্যক্ষ সাধন চন্দ্র পালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মহতি ধর্মসভার উদ্বোধন করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট খালেদ মাহমুদ। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সদর-রামু আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল বলেন-বর্তমান সরকার সকল ধর্মের মানুষের সহাবস্থান নিশ্চিত করেছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেছে। তিনি বলেন-স্বধর্ম পরিপালনের মধ্যে দিয়ে একজন সঠিক মানুষ হওয়া যায়। তাই আমাদের সকলকে নিজ নিজ ধর্ম সঠিক ভাবে পালনের মধ্যে দিয়ে দেশ ও সমাজের উন্নয়নে কাজ করে যেতে হবে। মহতি ধর্মসভায় রাসতত্ত্ব পরিবেশন করেন চট্টগ্রাম পুন্ডরিক ধামের অধ্যক্ষ ও ইসকনের বিভাগীয় সম্পাদক শ্রীপাদ চিন্ময় কৃষ্ণ দাস ব্রহ্মচারী, বাংলাদেশ হরিনাম প্রচার সংঘের সভাপতি শ্রীপাদ নিত্যানন্দ গোস্বামী নয়ন, খুরুশকুল শ্রীশ্রী জগন্নাথ ধামের সভাপতি শ্রীমৎ স্বামী জগন্নাথানন্দ পুরী মহারাজ, উখিয়া ডিগ্রী কলেজের অধ্যাপক অজিত দাশ ও ডাঃ কমল হরি পাল। রাস মহোৎসব উদ্যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক স্বপন পালের স্বাগত বক্তব্যে ও সৈকত বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক পার্থ প্রতীম পালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত ধর্মসভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন-অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম কুদ্দুস, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নোমান হোসেন, , সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ রনজিত কুমার বড়–য়া, জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি এডভোকেট রনজিত দাশ, সাধারণ সম্পাদক বাবুল শর্মাখুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন জসিম, সাবেক চেয়ারম্যান মাস্টার আবদুর রহিম প্রমুখ। বক্তব্যে রাখেন-খুরুশকুল ইউনিয়ন পুজা কমিটির সভাপতি অমল দে, রাস মহোৎসব উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি এডভোকেট নেপাল চন্দ্র পাল, অর্থ সম্পাদক মাস্টার পিকলুময় পাল। শুক্রবার সন্ধ্যায় শুভ অধিবাসের মধ্যে দিয়ে মহানামযজ্ঞের শুভ সূচনা হয়। ৪ ও ৫ নভেম্বর অহোরাত্র হরিনাম মহাযজ্ঞ, প্রসাদ বিতরণ চলবে। ৬ নভেম্বর মহানামযজ্ঞের পূর্ণাহুতির মধ্যে দিয়ে এই মাঙ্গলিক অনুষ্ঠানের পরিসমাপ্তি ঘটবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •