cbn  

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
পুলিশী বাঁধার মুখেও মহেশখালীতে যুবদলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বর্নাঢ্য আকারে পালিত হয়েছে।
উপজেলা ও পৌর যুবদল দুইদিনের কর্মসূচীর মধ্যে ২৬ অক্টোবর বিকাল ৩টায় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেক কাটা এবং ২৭ অক্টোবর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশাল বনার্ঢ্য র‌্যালী। ওইদিন সকালে মহেশখালী উপজেলা বিএনপির কার্যালয়ে দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। খতমে কোরআন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল ৩টায় পূর্ব নির্ধারিত বর্নাঢ্য র‌্যালীর জন্য উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে যুবদলের শত শত নেতাকর্মী মিছিল সহকারে উপজেলা সদরে বিএনপি অফিসে আসতে থাকে এবং মিছিল পূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়।
উপজেলা যুবদলের নবনির্বাচিত সভাপতি মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ন সম্পাদন ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি এড. নুরুল আলম।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আকতার কামাল চৌধুরী।
পৌর যুবদলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন মনজু ও উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আমান উল্লাহ আমানের যৌথ পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পৌর বিএনপির সভাপতি মনজুর আলম, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোহাম্মদ শফি মেম্বার, দপ্তর সম্পাদক মোসলেম মিয়া, প্রচার সম্পাদক আবদুর রহিম, জেলা- যুবদলের সহ-সভাপতি ও মহেশখালী উপজেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি মকসুদুল আলম নিরু। সংক্ষিপ্ত সমাবেশ শেষে প্রতিষ্ঠাবার্র্ষিকীর বর্নাঢ্য র‌্যালী শুরু হয়। র‌্যালীতে বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত যুবদলের নেতাকর্মীরা তাদের নিজস্ব ব্যানার, ফেস্টুন, ক্যাপ নিয়ে শান্তিপূর্ণ ভাবে অংশ গ্রহণ করে। র‌্যালী পূর্বে বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত নেতাকর্মীদের পদভারে পূরো এলাকা লোকে লোকারন্য হয়। মহেশখালীর স্মরণ কালের বিশাল র‌্যালিটি দলীয় অফিস থেকে আদালত চত্বরের দিকে রওনা হলে পুলিশ শুরুতে বাধা প্রদান করে পরে র‌্যালিটি বিএনপি অফিস থেকে শুরু হয়ে বাজার এলাকা প্রদক্ষিণ করে পুনরায় বিএনপি অফিসে আসার মুহুর্তে মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নেতৃত্বে শান্তিপূর্ন মিছিলে পুলিশ টিয়ার সেল ছুটে এবং লাঠিচার্জ করে যুবদলের ১০ নেতাকর্মীকে আহত করে এবং ৫ নেতাকর্মীকে আটক করে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পরে উপজেলা বিএনপির সভাপতিসহ নেতৃবৃন্দ দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে পুলিশের এরকম কাজের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।
মিছিলে আরও উপস্থিত ছিলেন যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক আনসারুল করিম টিটু, সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন সরোয়ার, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি এড. এম নছর উল্লাহ, আজিজুল করিম জয়, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোরশেদ আলম, যুবদল নেতা আবু জাফর কাউন্সিলর, মফিজুর রহমান, খোরশেদ আলম, এস এম রহমত উল্লাহ, আবদু জব্বার, হাবিব উল্লাহ।
কালারমারছড়া সভাপতি ক.ম আলমগীর, সাধারণ সম্পাদক বদরুল আলম সাদেক, ধলঘাটা সভাপতি কলিম উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, মাতারবাড়ী সাবেক আহবায়ক শামসুল আলম, যুগ্ন আহবায়ক মাষ্টার মীর কাশেম, দেলোয়ার হোসেন, জি.এম মোনাফ উল্লাহ, রফিক উদ্দীন মানিক, ছোট মহেশখালী সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নুরুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সালাহ উদ্দিন প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •