হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ :

টেকনাফের সাবরাং বকের জোরা নামক স্থানে অভিযান চালিয়ে বিজিবি ৫ কোটি ৩০ লক্ষ ৮ হাজার ৫০০ টাকা মুল্যের ১ লক্ষ ৭৬ হাজার ৬৯৫ পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করেছে বলে জানা গেছে। এসময় ইয়াবা চোরাকারবারীদের বহনকারী একখানা হস্তচালিত কাঠের নৌকা জব্দ করেছে। তবে গভীর রাতে অন্ধকারের সুযোগে ৪ জন ইয়াবা চোরাকারবারী পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। আটককৃত নৌকা টেকনাফ শুল্ক অফিসে জমা এবং উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে। যা পরবর্তীতে উর্ধতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ-২ বিজিবি’র পরিচালক অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল এস এম আরিফুল ইসলাম বলেন ‘২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ দমদমিয়া বিওপির হাবিলদার মোঃ লুৎফর রহমানের নেতৃত্বে একটি টহল দল ইঞ্জিনচালিত নৌকা যোগে নাফ নদীতে নিয়মিত টহলে গমন করে। টহল দল সোর্সের মাধ্যমে জানতে পারেন সাবরাং ইউপিস্থ বকের জোরা এলাকা দিয়ে ইয়াবার একটি চালান বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে। উক্ত সংবাদ প্রাপ্তির পর টহল দল উল্লেখিত এলাকায় গমন করতঃ ইঞ্জিন চালিত ট্রলার নিয়ে প্যারাবনের এক পাশে ওঁৎপেতে থাকে। পরবর্তীতে ২৮ অক্টোবর ভোর রাত সোয়া ৩টায় টহল দল সীমান্তের শুন্য লাইন অতিক্রম করে একটি হস্তচালিত নৌকা বাংলাদেশের দিকে আসতে দেখে নাফ নদীর কিনারায় আসার জন্য অপেক্ষারত থাকে। অতঃপর নৌকাটি নাফ নদীর কিনারায় আসা মাত্রই সন্দেহ হওয়ায় টহল দল তাদের চ্যালেঞ্জ করে। আকস্মিক বিজিবি টহলদলের উপস্থিতি লক্ষ্য করা মাত্রই নৌকায় আরোহিত ৪ জন ব্যক্তি নৌকা থেকে লাফ দিয়ে কেওড়া বাগানের ভেতর কর্দমাক্ত এলাকা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ায় তাদেরকে আটক করা সম্ভব হয়নি। পরবর্তীতে টহল দল ইয়াবা পাচারকারী কর্তৃক ফেলে যাওয়া নৌকাটি তল্লাশী করে ৫ কোটি ৩০ লক্ষ ৮ হাজার ৫০০ টাকা মুল্যের ১ লক্ষ ৭৬ হাজার ৬৯৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং উল্লেখিত নৌকা আটক করতে সক্ষম হয়। আটককৃত নৌকাটি টেকনাফ শুল্ক অফিসে জমা এবং উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে। যা পরবর্তীতে উর্ধতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে’।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •