cbn  

রামু প্রতিনিধি :

কক্সবাজারের রামুতে শুক্রবার গভীর রাতে এক যুবক খুন হয়েছেন। এ ঘটনার ২জনকে আটক করেছে পুলিশ। আবদুল জব্বার (২৩) নামের ওই ব্যক্তিকে কুপিয়ে ও গলাকেটে হত্যা করা হয়। তিনি খুনিয়া পালং ইউনিয়নের হেডম্যান বশির আহম্মদের ছেলে।

পুলিশ ও প্রত্যদর্শী সূত্রে জানা গেছে শুক্রবার গভীর রাতে খুনিয়া পালংয়ের ২নং ওয়ার্ডের হেডম্যান পাড়ায় সামাজিক বনায়নের বাগান পাহারা দিচ্ছিলেন আবদুল জব্বার। এ সময় একদল দুর্বৃর্ত্ত তাকে গলাকেটে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে আবদুল জব্বারের মৃত্যু হয়।

রামু থানার এস আই সানাউল্লাহ জানান, জব্বারের গলা কাটা মৃতদেহ উদ্ধার করে মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে লাশের সুরতহাল রির্পোট প্রস্তুত করে নিহত পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়। এঘটনায় রোহিঙ্গা মৃত মীর আহমদের ছেলে জিয়াবুল হক (২২) ও শামসুল আলমের স্ত্রী দেলোয়ারা বেগম (২৬) কে আটক করে বলে তিনি জানান।

রামু থানার ওসি তদন্ত এস এম মিজানুর রহমান জানান পরকিয়া প্রেমের জেরে এ খুনের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশ উদ্ধার করে এবং এঘটনায় ২ জনকে আটক করে পুলিশ। এব্যাপারে রামু থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •