নুরুল কবির বান্দরবান :

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে গুরুত্বারোপ করে বলেছেন, শিক্ষা ক্ষেত্রে মেধাবিকাশ ও আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে আরও মেধা চর্চা করতে হবে। তিনি বলেন, বান্দরবানের শিক্ষার্থীদের ভাল ফালাফল করার মাধ্যমে এক নাম্বার মানব সম্পদে পরিণত করতে নিজেদের ভুমিকা আরও জোরালো করতে হবে, ছড়িয়ে পড়তে হবে সারাদেশেই। শনিবার দুপুরে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বার্ষিক শিক্ষা বৃত্তি প্রদান’২০১৬-১৭ ইং সালের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি এসব কথা বলেন। পার্বত্য পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে অত্যুধুনক স্থাপত্যে নবনির্মিত বান্দরবান অরুণ সারকী টাউন হলের সভাকক্ষে আয়োজিত বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উন্নয়ন বোর্ডের ভাইচেয়ারম্যান তরুণ কান্তি ঘোষ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, বান্দরবান ক্যান্ট. পাবলিক স্কুল এবং কলেজের অধ্যক্ষ লে.কর্ণেল ড. রেজাউল ইসলাম, বান্দরবান সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মাকসুদুল আমীন,পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোডের যুগ্ন সচিব (সদস্য-পরিকল্পনা) নুরুল আলম চৌধুরী, পার্বত্য জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা মো.নুরুল আবসার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.কামরুজ্জামান মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রদীপ বড়–য়া,এবং উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো.আবদুল আজিজ। অনুষ্ঠানে বৃত্তিপ্রাপ্ত ২জন শিক্ষার্থীও বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে পড়–য়া বান্দরবান জেলার ৪২৭জন ছাত্র-ছাত্রীর মাঝে ১৯ লাখ ২০ হাজার টাকার বৃত্তির নগদ অর্থ প্রদান করেন প্রধান অতিথি ও অতিথিবৃন্দ।নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের মাঝে কলেজ পর্যায়ে ৪ হাজার এবং বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে নগদ ৫ হাজার টাকা করে বৃত্তির অর্থ বিতরণ করা হয়। বান্দরবান, রাংগামাটি ও খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলায় এবার বৃত্তির অর্থ বিতরণ করা হচ্ছে ৫৭ লাখ ৬০ হাজার টাকা।

উন্নয়ন বোর্ডের সদস্য-পরিকল্পনা নুরুল আলম চৌধুরী জানান, ১৯৭৬ সালে গঠিত পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে শুরু থেকেই মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বৃত্তি প্রদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী ঘোষণা দিয়ে বলেন, প্রথম পর্যায়ে বার্ষিক বৃত্তির টাকার পরিমাণ ছিল ২৫ লাখ টাকা। বর্তমানে এ বৃত্তির অর্থ ৬০ লাখ টাকায় উন্নীত করা হলেও আগামী অর্থবছর থেকে এ বৃত্তির পরিমান কোটি টাকায় উন্নীত করা হবে। সেই সাথে শিক্ষার্থীদের সংখ্যাও বাড়ানো হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •