মিছবাহ উদ্দিন, ঈদগাঁও:
কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ঈদগাঁও বাসস্টেশন অংশে সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ চলছে। অথচ দখল ঠেকাতে সওজের কোনো তৎপরতা নেই বলে জানালেন স্থানীয়রা।
এ অবস্থা চলতে থাকলে এই মহাসড়কের দুপাশের সওজের অধিগ্রহণ করা সব জমি অচিরেই বেদখল হয়ে যাওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে।
চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক হয়ে পর্যটন নগরী কক্সবাজারের অন্যতম বাণিজ্যিক রাজধানী ঈদগাঁও বাজার। এতে সওজের নির্ধারিত জায়গায় নতুন করে নির্মিত হচ্ছে অবৈধ স্থাপনা।
ঈদগাঁও বাসস্টেশনস্থ কেজি স্কুল গেইটের উত্তর পাশে মাস্টার শামশুল আলম মার্কেটটি আগে থেকে ১০ ফিট সওজের রাস্তার উপর নির্মিত হয়েছিল। কর্তৃপক্ষ কোন পদক্ষেপ না নেওয়ায় শনিবার সকাল থেকে দ্বিতীয় মেয়াদে স্থাপনা করার কাজ শুরু করেছে দখলবাজরা।প্রায় ৮ ফিট বাইরে এসে সিড়ি নির্মাণ কাজ শুরু করেছে মার্কেট কর্তৃপক্ষ।
স্থানীয়রা বলছেন, দ্রুত নির্মাণ কাজ বন্ধ করা না হলে গাড়ি পাকিং, হাঠা-চলার জায়গা সংকোচিত হয়ে যাবে। সৃস্টি হবে যানজট।
তাছাড়া রাস্তার উন্নয়ন কাজ করতে বাধা হয়ে দাঁড়াবে এই স্থাপনা।
এই নতুন নির্মাণ কাজ বন্ধের পাশাপাশি সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবী জানিয়েছে সাধারণ পথচারীরা।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ইসলামাদ পাহাসিয়াখালী এলাকার মাস্টার শামসুল আলম, জালালাাবদের পালাকাটা এলাকার মাস্টার তোফাজ্জল ও জাফর সাদেক নামক তিন ব্যক্তি এই মার্কেটের মালিক।
স্থানীয় ব্যাসয়ীরা জানায়, তাদের সঙ্গে সড়ক ও জনপথ বিভাগের কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারীর গোপন খাতির রয়েছে। এ কারণে নির্দিধায় সরকারী জায়গাতে স্থাপনার সাহস করেছে।
এ ব্যাপারে মার্কেট মালিক মাস্টার শামশুল আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কিছু বলতে রাজি হননি।
সড়ক ও জনপথ বিভাগ কক্সবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী রানা প্রিয় বড়ুয়ার সাথে মুঠেফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি অফিস থেকে কর্মকর্তা পাঠিয়ে তদন্তপূর্বক তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে বলে জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •